ট্রাম্প-সৌদির আর্থিক সম্পর্ক তদন্ত করবে কংগ্রেস

প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মার্কিন কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের একটি প্যানেল প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও সৌদি আরবের মধ্যকার যৌথ ব্যবসা ও অর্থনৈতিক সম্পর্কের বিষয়টি তদন্ত করবে। কংগ্রেসের ইন্টেলিজেন্স কমিটির এক সদস্যের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম পার্স টুডে। কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের ইন্টেলিজেন্স কমিটির সদস্য এরিক সলওয়েল বলেন, ‘ট্রাম্প ও সৌদি আরবের মধ্যকার আর্থিক সম্পর্ক জোরালোভাবে তদন্ত করা হবে। তদন্তের মধ্যে থাকবে ওয়াশিংটনে নিউ ট্রাম্প হোটেলের কয়েক শত কক্ষ ভাড়া করার ঘটনা।’

গত নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজয়ী হওয়ার পর সৌদি লবিস্টরা এসব হোটেল কক্ষ ভাড়া নেন। এ তদন্তের মাধ্যমে ট্যাক্স রিটার্ন ও ব্যাংক রেকর্ডের মাধ্যমে ট্রাম্পের সঙ্গে সৌদি সরকারের সম্পর্ক নিয়ে বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে বলেও জানান কংগ্রেসের ইন্টেলিজেন্স কমিটির ওই সদস্য। এদিকে সৌদির একটি জনসংযোগ সংস্থার কর্মকর্তা মার্কিন দৈনিক ওয়ালস্ট্রিট জার্নালকে বলেন, ‘সৌদি লবিস্টরা এমন একটি বিল পাসে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন যাতে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরে টুইন টাওয়ারে হামলার বিষয়ে বিদেশি সরকারগেুলোকে দায়ী করে মার্কিন নাগরিকদের মামলা করার সুযোগ দেওয়া হচ্ছিল।’

নির্বাচনী ক্যাম্পেইন পরিচালনার দায়িত্বে থাকা লোকজন মার্কিন সামরিক বাহিনীর সাবেক কর্মকর্তাদের হোটেল কক্ষে থাকার সুযোগ করে দিয়েছিলেন এবং পরে তাদের ক্যাপিটাল হিলে এই বিলের বিরুদ্ধে লবি করার জন্য পাঠানো হয়। সৌদি আরবের ওই জনসংযোগ প্রতিষ্ঠানটি হোটেল কক্ষের ভাড়া ও খাওয়া-দাওয়া বাবদ দুই লাখ ৭০ হাজার ডলার বিল পরিশোধ করে।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথম বিদেশ সফরে সৌদি আরব যান ডোনাল্ড ট্রাম্প।

 

ওই সফরে তাকে ব্যাপক সংবর্ধনা দেওয়া হয়। তা ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে সৌদি আরব ১১ হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র কেনার চুক্তি করে। এসব নিয়েও কথা বলেন কংগ্রেসম্যান এরিক সলওয়েল।

 

"