আটকা সৌদি নারীকে ফেরত না পাঠানোর অনুরোধ এইচআরডব্লিউর

প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পরিবারের কাছ থেকে পালানো সৌদি নারীকে বিমানবন্দর থেকে কুয়েতে ফেরত না পাঠাতে থাইল্যান্ডের বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

গতকাল সোমবার স্থানীয় সময় বেলা সোয়া ১১টার দিকে কুয়েত এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে রাহাফ মোহাম্মদ আল-কুনুন নামের ওই সৌদি নাগরিককে তুলে দেওয়ার কথা রয়েছে।

ফেরত পাঠালে পরিবারের সদস্যরা তাকে ‘হত্যা করতে পারে’ এ আশঙ্কার কথা জানিয়ে গত রোববার টুইটারে ছবিসহ পোস্ট দিয়েছিলেন ১৮ বছরের এ তরুণী।

বিশ্ব গণমাধ্যমে খবর প্রকাশের পর গতকাল সোমবার হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডাব্লিউ) রাহাফকে ফেরত পাঠানোর পরিকল্পনা বাদ দিতে থাইল্যান্ডকে অনুরোধ করে বলে বিবিসি জানিয়েছে।

পরিবারের সঙ্গে কুয়েত ভ্রমণে থাকার সময় পালানো এ সৌদি নারী আশ্রয় প্রার্থনার জন্য ব্যাংকক হয়ে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার চেষ্টায় ছিলেন।

ব্যাংকক বিমানবন্দরে সৌদি আরবের একজন কূটনীতিক তার সঙ্গে দেখা করে তার পাসপোর্ট নিয়ে নেয় বলে দাবি করেন রাহাফে।কুয়েতে ফেরত পাঠানো হলে পরিবারের সদস্যরা তাকে সৌদি আরবে নিয়ে গিয়ে হত্যা করবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন এ নারী।

‘আমার ভাই ও পরিবারের সদস্যরা এবং সৌদি দূতাবাস কুয়েতে আমার জন্য অপেক্ষা করছে। তারা আমাকে মেরে ফেলবে। আমার জীবন বিপন্ন। আমার পরিবার আমাকে তুচ্ছ সব কারণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে’ গত রোববার রয়টার্সকে দেওয়া অডিও ও লিখিত মেসেজে এমনটাই বলেন রাহাফ।

নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের মধ্য এশিয়াবিষয়ক সহকারী পরিচালক মাইকেল পেইজ গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে ‘বিপদের মুখে থাকা প্রাপ্তবয়স্ক সৌদি নারীকে’ ফেরত পাঠানো থাইল্যান্ডের উচিত হবে না বলে মন্তব্য করেছেন।

 

"