যুক্তরাষ্ট্রকে ইমরান খান

আমরা ভাড়াটে সৈনিক নই

প্রকাশ : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পাকিস্তানের ঘাড়ে রেখে বন্দুক চালানোর দিন যে শেষ যুক্তরাষ্ট্রকে তোপ দেগে সে কথাই এবার স্পষ্ট করে জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি বলেন, পাকিস্তান আর তাদের ভাড়াটে সৈনিক নয়।

‘দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইমরান খান এ কথা বলেন। অভিযোগ করে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে দূরে ঠেলে দিচ্ছে। তিনি কখনো ওয়াশিংটনের সঙ্গে এমন সম্পর্ক চাইবেন না যেখানে পাকিস্তানকে ভাড়াটে সৈনিক বলে ভাবা হবে।

তিনি বলেন, পাকিস্তানকে ভাড়া করা বন্দুক ভাবা হবে এমন সম্পর্ক কারো সঙ্গেই চাই না। আমাদের টাকা দিয়ে অন্যের যুদ্ধ লড়তে বলবে তা চাই না। আমাদের আর কখনোই ওই অবস্থায় যাওয়া উচিত হবে না। এতে শুধু মানুষের প্রাণহানি আর আদিবাসী এলাকাগুলোই ধ্বংস হয় না, এতে আমাদের মর্যাদাও নষ্ট হয়। আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যথাযথ সম্পর্ক চাইব।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় বাকযুদ্ধ নিয়েও প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন ইমরান। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি পাকিস্তানকে সন্ত্রাসবাদীদের অভয়াশ্রম আখ্যা দেন। একইসঙ্গে অনুদানও বন্ধের সিদ্ধান্ত জানান। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে টুইটারে বাকযুদ্ধ হয়েছিল। এ সম্পর্কিত প্রশ্নের জবাবে ইমরান বলেন, টুইটারে বাকযুদ্ধ হয়নি। আমি শুধু বলেছিলাম ট্রাম্প ইতিহাস না জেনে কথা বলছেন। যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ লড়ে পাকিস্তান অনেক ভুগেছে। এখন আমরা দেশের মানুষের জন্য এবং নিজেদের স্বার্থের জন্য যেটা সবচেয়ে ভালো হয় সে কাজটিই করবে। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ সম্পর্কে ইমরান বলেন, পাকিস্তানে তালেবানের কোনো অভয়াশ্রম নেই।

কিন্তু মার্কিন কর্মকর্তারা মনে করেন পাকিস্তানে তালেবানের জঙ্গিরা থাকে সে ব্যাপারে কী বলবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে ইমরান বলেন, আমি ক্ষমতায় আসার পর নিরাপত্তা বাহিনী আমাকে বলেছে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বারবার জানতে চাওয়া হয়েছে জঙ্গি ঘাঁটি কোথায় আছে? বললে আমরা সেখানে চড়াও হব। তারা বলেনি। আর তাই পাকিস্তানে তালেবান জঙ্গি ঘাঁটি নেই বলেই বিশ্বাস করি।

"