বায়ুদূষণে ২০১৭ সালে ভারতে সাড়ে ১২ লাখ মানুষের মৃত্যু

প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২০১৭ সালে বায়ুদূষণের শিকার হয়ে ভারতে প্রায় ১২ লাখ ৪০ হাজার মানুষের মৃত্যুর তথ্য দিয়েছে একটি জরিপ। বিশ্বজুড়ে সুপরিচিত পরিবেশবিষয়ক জার্নাল ল্যানচেট প্লানেটারি হেলথ-এ গত বৃহস্পতিবার প্রকাশিত জরিপে বলা হয়েছে, ওই বছরে মারা যাওয়া মোট মানুষের মধ্যে ১২.৫ শতাংশের মৃত্যুর কারণ বাতাস দূষণ। দূষিত বাতাসের কারণে মারা যাওয়া ৫১ শতাংশ মানুষের বয়স ৭০ বছরের নিচে। এই দূষণের কারণে ভারতের মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয় দেড় বছরেরও বেশি কমেছে বলে জানিয়েছে ওই জরিপ।

ল্যানচেট প্লানেটারি হেলথ জার্নালে প্রকাশ হওয়া জরিপ পরিচালনা করেছেন ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অ্যাকাডেমিক এবং বিজ্ঞানীরা। ভারত সরকার এবং ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ এর পাশাপাশি এতে অর্থায়ন করেছে বিল অ্যান্ড মিলিন্ড গেটস ফাউন্ডেশনও।

জরিপে বলা হয়েছে, ভারতের রাজধানী দিল্লির বাতাসে পিএম ২.৫ নামে পরিচিত ক্ষুদ্র কণার উপস্থিতি সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। এই কণা ফুসফুসের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যার কারণ হতে পারে বলে ওই জরিপে বলা হয়েছে।

ওই জরিপ বলছে, বাতাসের মান স্বাস্থ্যকর পর্যায়ে থাকলে ২০১৭ সালে ভারতের মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ১.৭ বছর বেড়ে যেত। তবে সম্প্রতি শিকাগো ইউনিভার্সিটির এক প্রতিবেদনে এর চেয়েও আশঙ্কাজনক তথ্য দেওয়া হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দূষণের কারণে ভারতীয়দের প্রত্যাশিত গড় আয়ু চার বছরেরও বেশি কমে যাচ্ছে। এ ছাড়া চলতি শুরুর দিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছিল বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত ১৪টি শহরের অবস্থান ভারতে।

প্লানেটারি হেলথ জার্নালে প্রকাশিত নতুন জরিপে বলা হয়েছে, ভারতে মানুষের মৃত্যু ও প্রত্যাশিত গড় আয়ুর ওপর বাতাস দূষণের প্রভাব হয়তো আগের ধারণার চেয়ে কম হতে পারে তবে এখনো আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে তা।

"