খাশোগি হত্যায় সৌদি যুবরাজকে দায়ী করে মার্কিন সিনেটে প্রস্তাব উত্থাপন

প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অনুসন্ধানী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার ঘটনায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানকে দায়ী করতে দলমতের ঊর্ধ্বে উঠে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করেছেন শীর্ষস্থানীয় ছয় মার্কিন সিনেটর। গত বুধবার প্রস্তাবটি মার্কিন সিনেটে উত্থাপিত হয়। প্রস্তাবটি অনুমোদন পেলে খাশোগিকে হত্যার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে সৌদি যুবরাজের বিরুদ্ধে নিন্দা জানাবে মার্কিন সিনেট।

৫৯ বছর বয়সী খাশোগি একসময় সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি যুবরাজের কঠোর সমালোচকে পরিণত হন। গ্রেফতার এড়াতে দুই বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা নির্বাসনে চলে যান খাশোগি। দ্বিতীয় বিয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে গিয়ে হত্যার শিকার হন তিনি। প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে খাশোগি হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করে সৌদি আরব জানায়, ইস্তাম্বুলের কনস্যুলেটে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে খুন হন তিনি। এ ঘটনায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগও ওঠে। তবে সৌদি কর্তৃপক্ষ সে অভিযোগ নাকচ করে আসছে। তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান খাশোগি হত্যার ঘটনায় সরাসরি সৌদি যুবরাজকে দায়ী না করলেও তিনি দাবি করেছেন, সৌদি আরবের ‘শীর্ষ পর্যায়’ থেকে হত্যার নির্দেশ এসেছে।

এরই মধ্যে যুবরাজ মোহাম্মদের এক শীর্ষ সহযোগী ও সৌদি আরবের পররাষ্ট্র সংক্রান্ত গোয়েন্দা সংস্থার উপপ্রধানের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন ইস্তাম্বুলের প্রধান প্রসিকিউটর।

গত বুধবার মার্কিন সিনেটে উত্থাপিত প্রস্তাবে বলা হয়, মোহাম্মদ বিন সালমান যে এ হত্যার ঘটনায় জড়িত সে ব্যাপারে সন্দেহ করার ক্ষেত্রে সিনেটের ‘উচ্চ পর্যায়ের আস্থা’র জায়গা আছে। রিপাবলিকান সিনেটর ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ সহযোগী লিন্ডসে গ্রাহাম এক বিবৃতিতে বলেছেন, এ প্রস্তাবে দ্ব্যর্থহীন ও নিশ্চিতভাবে বলা হচ্ছে, সৌদি যুবরাজ খাশোগি হত্যায় জড়িত এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের জাতীয় নিরাপত্তাজনিত স্বার্থকে ঝুঁকিতে ফেলে আঞ্চলিক ধ্বংসবোমা হিসেবে কাজ করছেন।

এর একদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র রুদ্ধদ্বার ব্রিফিংয়ে অংশ নেওয়া সিনেটররা মত দেন সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকান্ডে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের জড়িত না থাকার সম্ভাবনা শূন্য। গত মঙ্গলবার সিআইএ প্রধান জিনা হাসপেলের এ সংক্রান্ত ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন সিনেট ফরেন রিলেশন্স কমিটির শীর্ষ ডেমোক্র্যাট সিনেটর বব মেনেনদেজ। তিনি বলেন,এ বিষয়ে আমার মতামত আগে যা ছিল, এখন তা আরো জোরালো হয়েছে। রিপাবলিকান পার্টির সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম সাংবাদিকদের বলেন, সৌদি যুবরাজের লোকজনই সমন্বিতভাবে এটি ঘটিয়েছে এমন উপসংহারে পৌঁছাতে না চাইলে আপনাকে জেনেশুনে অন্ধ হতে হবে। সিনেট ফরেন রিলেশন্স কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন রিপাবলিকান পার্টির সিনেটর বব করকার। তিনি বলেন, যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানই যে এ হত্যাকান্ডের নির্দেশ দিয়েছেন এবং এটি পর্যবেক্ষণ করেছেন এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই। বব করকারের দাবি, বিচারের মুখোমুখি করা হলে ৩০ মিনিটের মধ্যে সৌদি যুবরাজকে দোষী সাব্যস্ত করা সম্ভব।

"