গুগল নিয়ে মার্কিন শীর্ষ জেনারেলের আক্ষেপ

প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের সঙ্গে শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগলের কাজ করতে না চাওয়াকে ‘ব্যাখ্যাতীত’ বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ এক সামরিক কর্মকর্তা। গত বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যান ও মেরিন জেনারেল জোসেফ ডানফোর্ড বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে কম সুবিধা পাওয়া চীনে ব্যবসা করতে চাইলেও পেন্টাগনের সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী না গুগল। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, তার এই মন্তব্যের বিষয়ে তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি চীনে গুগলের মুখপাত্র।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় ইন্টারনেট মার্কেট চীনে বহুদিন ধরে পরিসর বিস্তৃত করার চেষ্টা করছে অ্যালফাবেট ইনকরপোরেশনের গুগল। অভ্যন্তরীণ সেবা দেশটির ইন্টারনেট মার্কেটে আধিপত্য ধরে রেখেছে। এর বিরুদ্ধে প্রতিযোগিতায় টিকতে হলে চীন সরকারের অনুমোদনের দরকার গুগলের। দেশটির ব্যবহারকারীদের জন্য সেন্সর করতে সক্ষম এমন সার্চ ইঞ্জিনের উন্নয়ন ঘটাচ্ছে গুগল। রাজনৈতিকভাবে স্পর্শকাতর ফলাফল ব্লক করা বিষয়ক চীন সরকারের নীতির বিরুদ্ধে আরো কঠোর অবস্থান না নেওয়ার সমালোচনা সত্ত্বেও কাজ চালিয়ে যাচ্ছে গুগল। তবে এই উন্নয়ন পরীক্ষামূলক এবং তা এখনো শুরুর কাছাকাছি পর্যায়েও যায়নি বলে দাবি তাদের।

গত বৃহস্পতিবারের অনুষ্ঠানে নিজেদের ভালো মানুষ দাবি করে যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর জেনারেল জোসেফ ডানফোর্ড বলেন, ‘আমরা জানি চীনে স্বাধীনতার সুযোগ সীমিত, আমরা জানি চীন কোম্পানিগুলোর কাছ থেকে মেধাসত্ত্ব নিয়ে নেবে। সেই চীনে ব্যবসায়িক স্বার্থ এগিয়ে নিতে আমরা একযোগে কাজ করতে পারি। তবুও কেন তা করা হচ্ছে না তা আমার কাছে ব্যাখ্যাতীত’।

চীনে গুগলের মুখপাত্র ডানফোর্ডের এই বক্তব্যের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া না দিলেও আগে গুগলের প্রধান নির্বাহী সুন্দর পিচাই জানিয়েছেন বহু বছর ধরে তাদের কোম্পানি চীনে বিনিয়োগ করে আসছে এবং ভবিষ্যতেও তা করা হবে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র সরকারের স্বাস্থ্য সেবা, সাইবার নিরাপত্তা ও অন্যান্য ক্ষেত্রে সহযোগিতা অব্যাহত রাখা হবে বলেও জানিয়েছেন পিচাই।

এ বছরের শুরুতে গুগল ঘোষণা দেয় মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের এক হাজার কোটি মার্কিন ডলারের ক্লাউড কম্পিউটিং চুক্তি পেতে আর কোনো প্রচেষ্টা চালাবে না। কারণ হিসেবে বলা হয়, গুগলের নৈতিকতাবিষয়ক নতুন গাইডলাইনের সঙ্গে ওই প্রজেক্ট খাপ খাচ্ছে না। এ ছাড়া জুনে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর ড্রোন বিমানে ধারণ করা ছবি বিশ্লেষণে সহায়তার চুক্তি নবায়ন না করার ঘোষণা দেয় গুগল। অভ্যন্তরীণ বিদ্রোহ প্রশমিত করতে ‘প্রজেক্ট মাভেন’ নামে পরিচিত ওই প্রতিরক্ষা কর্মসূচি আর নবায়ন না করার সিদ্ধান্তের কথা জানায় কোম্পানিটি। গুগলের প্রযুক্তি যুদ্ধক্ষেত্রে ব্যবহার করা নিয়ে কর্মীদের একাংশ অভ্যন্তরীণভাবে ওই বিদ্রোহ শুরু করে।

"