বাহরাইনের বিরোধীদলীয় নেতার যাবজ্জীবন

প্রকাশ : ০৬ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কাতারের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত বাহরাইনের প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা শেখ আলি সালমানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আপিল আদালত। শত্রু রাষ্ট্রের সঙ্গে ‘আঁতাতের’ অভিযোগে কয়েক মাস আগে ‘বাহরাইনি হাইকোর্ট অব ফার্স্ট টিয়ার’ সালমানকে দোষী সাব্যস্ত করে। ২০১৭ সালে কাতারের সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করে বাহরাইন। মানবাধিকার সংগঠনগুলো এ রায়কে ‘বিচারের নামে প্রহসন’ বলে বর্ণনা করেছে।

অ্যামনেস্টির মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকা অংশের পরিচালক হেবা মোরায়েফ বলেন, ‘এ রায় যেকোনো ধরনের বিরোধী মতকে চুপ করাতে বাহরাইন কর্তৃপক্ষের নিষ্ঠুর এবং অবৈধ উদ্যোগ।’

আলি সালমান বাহরাইনে নিষিদ্ধ ঘোষিত আল ওয়াফেক আন্দোলনের নেতা। ২০১১ সালে তার বিরুদ্ধে কাতারের যোগসাজশে সরকারবিরোধী আন্দোলন উসকে দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়। ২০১৫ সাল থেকে তিনি কারাগারে আছেন। একই অভিযোগে গ্রেফতার অপর দুই বিরোধী নেতা হাসান সুলতান এবং আলি আল আসওয়াদকেও যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। শিয়া অধ্যুষিত বাহরাইনের ক্ষমতায় থাকা সুন্নি মুসলিম রাজপরিবার দেশটির বেশির ভাগ সরকারি উচ্চপদ নিজেদের দখলে রেখেছে। অন্যদিকে, শিয়াদের দল আল ওয়াফাক ২০১১ সালের আগে পার্লামেন্টে দেশটির প্রধান বিরোধী দল ছিল।

২০১১ সালের ফেব্রুয়ারিতে গণতন্ত্রের দাবিতে আরব দেশগুলোতে যে আন্দোলন শুরু হয় তার ধাক্কা বাহরাইনেও লাগে। আল সালমানের নেতৃত্বে প্রধানত শিয়া মুসলমানরা গণতন্ত্রের দাবিতে রাস্তায় আন্দোলন শুরু করে।

 

"