এবার কি রাশিয়ার পালা?

প্রকাশ : ২১ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন (বাঁ থেকে)।

২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের ৬ জাতির মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেছেন বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। চুক্তি থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়ার পর ইরানের নতুন করে অবরোধ আরোপ করেছে দেশটি।

শুধু ইরানের সঙ্গেই যুক্তরাষ্ট্রের পরমাণুচুক্তি রয়েছে এমনটি নয়। সুপারপাওয়ার রাশিয়ার সঙ্গেও দেশটির পরমাণুচুক্তি কার্যকর রয়েছে প্রায় ৩০ বছর ধরে। ১৯৮৭ সালে দুই দেশের মধ্যে অনুষ্ঠিত ওই চুক্তি নিয়ে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে।

রাশিয়ার সঙ্গে পরমাণু চুক্তি বাতিল করার জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন চাপ সৃষ্টি করেছেন বলে খবর প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান।

ফলে রাশিয়া ও ইরানের মধ্যেই ওই চুক্তি আর কত দিন কার্যকর থাকবে তা নিয়ে সন্দেহ সৃষ্টি হয়েছে। আন্তর্জাতিক মহলে বিষয়টি নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ শুরু হয়েছে। একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে গার্ডিয়ান জানিয়েছে, ১৯৮৭ সালে সই হওয়া ইন্টারমিডিয়েট-রেঞ্জ নিউক্লিয়ার ফোর্সেস ট্রিটি বা আইএনএফ বাতিল করার জন্য বোল্টন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে পরামর্শ দিচ্ছেন।

চুক্তি বাতিলের জন্য তিনি যুক্তি হিসেবে বলেছেন, রাশিয়া নতুন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির মাধ্যমে ওই চুক্তি লঙ্ঘন করেছে।

তবে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার এ ধরনের প্রস্তাব এখনো মানতে নারাজ মার্কিন পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগনের কয়েকজন কর্মকর্তা। বিষয়টি নিয়ে সোমবার এক বৈঠকের কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত বৈঠকটি স্থগিত করা হয়।

স্নায়ুযুদ্ধের সময় সই হওয়া ওই চুক্তির ফলে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যে অস্ত্র প্রতিযোগিতা বন্ধ হয়েছিল। আগামী বছরের প্রথম দিকে এই চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে।

"