মোদির পথে হাঁটলেন ইমরান

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ক্ষমতায় আসার পর দেশের উন্নতিতে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ক্ষমতায় এসে কখনো বৃক্ষ রোপণ তো কখনো খরচ কমানোর মতো কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন তিনি। এবার সবুজ ও পরিষ্কার পাকিস্তান গড়ার ডাক দিলেন ইমরান।

‘ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন’ কর্মসূচি নিয়েছেন পাকিস্তানের এই প্রধানমন্ত্রী। এর আগে ‘স্বচ্ছ ভারত’ কর্মসূচি নিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ইমরানের এই স্বচ্ছতা অভিযানের পদক্ষেপের ঘটনায় রাজনৈতিক মহল বলছে, ভারতের দেখানো পথেই হাঁটছে পাকিস্তান। সোমবার থেকে পথচলা শুরু করেছে ইমরান সরকারের ‘ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন পাকিস্তান’ কর্মসূচি। পাকিস্তানের চারটি প্রদেশ, পাক অধিকৃত কাশ্মীর ও বেলুচিস্তানে শুরু হয়েছে এই কর্মসূচি। ইমরান খানের এক উপদেষ্টা জানিয়েছেন, দেশজুড়ে ছয়জন স্বচ্ছতা দূত নিয়োগ করা হবে। একই সঙ্গে দেশের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, ধর্মীয় নেতা, বিশিষ্ট ব্যক্তিদেরও শামিল করা হবে এই অভিযানে। এ ছাড়া পাকিস্তানের বেসরকারি সংস্থা, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোকে এই অভিযানে কাজ করার জন্য আহ্বান জানানো হবে। ২০১৪ সালের ২ অক্টোবর স্বচ্ছতা অভিযান চালু করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ২০১৯ সালের ২ অক্টোবরের মধ্যে দেশকে নির্মল করে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে মোদি সরকারের। ওই প্রকল্প বেশ সাড়া ফেলেছে। এই কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে ইন্ডিয়া গেট পরিষ্কার করেন সরকারি কর্মকর্তারা।

কমপক্ষে ৩০ লাখ কর্মকর্তা এই কর্মসূচিতে অংশ নেন। সরকারি বহু অভিনেতা-অভিনেত্রী, ক্রিকেটার এই কর্মসূচির অংশ হয়েছিলেন। ভারতকে দেখেই ইমরান ‘ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন পাকিস্তান’ কর্মসূচি নিয়েছেন বলে গুঞ্জন উঠেছে।

শুধু স্বচ্ছতা অভিযানই নয়। দেশ থেকে পোলিও দূরীকরণেরও উদ্যোগ নিয়েছেন ইমরান খান। পাকিস্তানের মতো দেশে পোলিও দূরীকরণের মতো অভিযান সফল করা বেশ কঠিন। কারণ এনিয়ে সেদেশে বেশ কিছু ভুল ধারণা রয়েছে। ইমরান খান পোলিও দূরীকরণের জন্য ৫ বছরের একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। গত একশো দিনের মধ্যে ইমরান খানের এটি একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত।

"