মালদ্বীপে সাংবাদিকদের জন্য ভিসা সহজ করার আহ্বান

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মালদ্বীপে বিদেশি সাংবাদিকদের জন্য ভিসা সহজ করার আহ্বান জানিয়েছে দেশটির প্রধান বিরোধী দল। বর্তমান ভিসা পদ্ধতিকে প্রাচীন ড্রাকোনিয়ান যুগের কঠোর আইন বলে মন্তব্য করেছে দলটি। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই সংবাদ সংগ্রহে অনেক বিদেশি সাংবাদিক আসতে চাইলে তাদের ভিসা প্রক্রিয়া যেন সহজ হয় সেই ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়। বর্তমান প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ ইয়ামিন দ্বিতীয়বারের মতো লড়াই করছেন। তবে তার মূল প্রতিপক্ষরা সন্ত্রাসবাদসহ বিভিন্ন অভিযোগে কারাগারে আছেন। ফলে এই নির্বাচনের স্বচ্ছতা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

২০১২ সালে দেশটির প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত নেতা মোহামেদ নাশিদকে পদচ্যুত করার পর থেকেই মালদ্বীপে রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজ করছে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী বিদেশি সাংবাদিকদের বিজনেস ভিসা আবেদন করতে হবে, যার জন্য মালদ্বীপের কোনো প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষণা দেখাতে হবে এবং আগের চাকরি, ভ্রমণ ইতিহাস, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত যুক্ত করতে হবে। থাকতে হবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটও।

এক বিবৃতিতে প্রধান বিরোধী দল এমডিপি দাবি করে, মালদ্বীপের ভিসা ব্যবস্থা কঠিন করা হয়েছে যেন বিদেশি সাংবাদিকরা প্রবেশে করতে না পারে। এতে করে ইয়ামিনির অস্বচ্ছ নির্বাচন আয়োজনে সুবিধা হবে। তারা জানায়, এই প্রক্রিয়া সহজ করা দরকার। আর কঠিন করার প্রক্রিয়টিকে নির্বাচনের কারচুপির প্রয়াস বলে গণ্য করা উচিত।

এর আগে সাংবাদিকরা অন অ্যারাইভাল ভিসা পেতেন। বিরোধীদলীয় নেতা ইব্রাহিম মোহামেদ সোলিথ এক টুইটবার্তায় পুরোনো ভিসা পদ্ধতি চালু করার আহ্বান জানিয়েছেন। সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ট্যুরিস্ট ভিসায় গিয়ে যারা সংবাদ সংগ্রহ করবেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইতোমধ্যে এএফপির দুজন সাংবাদিককে ফেরত পাঠিয়েছে তারা। তবে মালদ্বীপের নির্বাচন কমিশন থেকে দাবি করা হয়েছে, তারা যেকোনো আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের কাজ করার সুযোগ দিতে চান। তবে সেক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ধাপ পার হয়ে আসতে হবে তাদের।

"