‘৯/১১’-এর পর আবার চালু নিউইয়র্কের সেই রেলস্টেশন

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ama ami

নাইন-ইলেভেন ট্র্যাজেডির ১৭ বছর হল। পৃথিবীর ইতিহাসের জঘন্যতম এই সন্ত্রাসী হামলায় বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর রাষ্ট্র আমেরিকাসহ পুরো বিশ্বই কেঁপে ওঠে। সেই ভয়ঙ্কর জঙ্গি হামলায় নিউইয়র্কে টুইন টাওয়ার খ্যাত ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে ধ্বংসস্তুপে চাপা পড়ে যাওয়া সেখানকার পাতাল রেল স্টেশন ১৭ বছর পর আবার চালু করা হয়েছে। গত শনিবার ৮ সেপ্টেম্বর স্টেশনটি চালু করা হয়। এরপর দুপুরে স্টেশনটি থেকে প্রথম ট্রেন ছেড়ে যায়। এসময় লোকজন ট্রেনটিকে স্বাগত জানায় বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার সময় যাত্রীবাহী দুটি প্লেনের আঘাতে ধসে পড়েছিল টাওয়ারটি। এতে প্রায় তিন হাজার মানুষের মৃত্যু হয়। এসময় টাওয়ারের ধ্বংসস্তুপে চাপা পড়েছিল ওই স্টেশনটি। সে সময় এটির নাম ছিল কোর্টল্যান্ড স্ট্রিট। এখন ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের স্মরণে নতুন করে ‘ডব্লিউটিসি কোর্টল্যান্ড স্টেশন’ নামে চালু করা হলো।

এব্যাপারে নিউইয়র্ক সিটির মেট্রোপলিটন পরিবহন কর্তৃপক্ষ (এমটিএ) চেয়ারম্যান জো লোতা বিবৃতিতে জানিয়েছেন, স্টেশনটি এখন সাবওয়ে নয়, এর চেয়ে অনেক বেশি কিছু। এছাড়া স্টেশনটি ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের সাইট পুনরুদ্ধারের প্রতীক। উল্লেখযোগ্য একটি সমাধান এটি চালু করা। উল্লেখ্য, ব্যবসা ও নিরাপত্তার কেন্দ্রবিন্দু ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার সন্ত্রাসী হামলার কবলে পড়ে চোখের পলকে মাটিতে মিশে গিয়েছিল। কিন্তু থেমে থাকেনি আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন। সেই হামলার ক্ষত শুকিয়ে সেখানে ফের মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে ওয়ান ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার। এখন একটি ভবনই সেখানে দাঁড়িয়েছে ফের আকাশ ছুঁয়ে দিতে। বিশাল বাজেট হাতে নিয়ে এর নির্মাণ শুরু হয় ২০০৬ সালের ২৭ এপ্রিল। প্রায় ৩.৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ হয় এই ভবনটি নির্মাণে। টাওয়ারটি আমেরিকার সর্বোচ্চ উঁচু ভবন।

এবার এটির নিরাপত্তার জন্য রয়েছে আরও আধুনিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। যেকোন এরোপ্লেন এর দিকে ছুটে এলেই শক্তিশালী রাডারের নিখুঁত গণনায় সেটিকে ভূপাতিত করার অত্যাধুনিক ব্যবস্থা এতে রাখা হয়েছে। ভবনটির ভেতরের ইন্টেরিয়র ডেকোরেশন বিশ্বসেরা বলেও মনে করেন অনেকে।

"