ভুয়া চিকিৎসক দিয়ে গর্ভপাত

প্রকাশ : ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

চিকিৎসক হিসেবে প্রাতিষ্ঠানিক কোনো সনদ নেই তার। অথচ ২৫ বছর ধরে ওষুধের দোকানের আড়ালে গর্ভপাত করান খোকন বিশ্বাস। ভারতের বংশীহারি থানার পাশেই এ ধরনের কার্যক্রম দীর্ঘদিন ধরে তিনি কীভাবে করে আসছেন সেটা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ইতোমধ্যেই অনেকে প্রশ্ন তুলছেন পুলিশের ভূমিকা নিয়েও। স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, খোকনের বাবাও এলাকায় হাতুড়ে চিকিৎসক হিসেবে পরিচিত ছিলেন। খোকনও ওষুধের দোকানের আড়ালে ডাক্তার পরিচয়ে ‘চেম্বার’ খুলে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। নিজের বাড়িতে রীতিমত ‘নার্সিংহোম’ তৈরি করে ফেলেছেন অভিযুক্ত খোকন। বাইরে থেকে অবশ্য বোঝার উপায় নেই যে, বাড়ির ভেতর কী চলছে। ওষুধের দোকানের ভেতরের একটি ঘরে পাঁচটি বেড রাখা রয়েছে। এমনকি অস্ত্রোপচারের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন সরঞ্জামও রয়েছে সেখানে। সেখানেই গর্ভপাতের কাজ সারতেন তিনি। স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, খোকন তৃণমূলের কাউন্সিলর বলেই এটা নিয়ে এলাকার কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, আমরা জানতামই না, খোকনের ঘরের ভেতরে নার্সিংহোমের মতো এত এলাহি ব্যবস্থা রয়েছে!

সেখানেই গর্ভপাত করাতে এসে গত শুক্রবার এক নাবালিকার মৃত্যুর জেরে এলাকায় হইচই পড়ে যায়। স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনার পরই তার বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখান। পরে রাতের দিকে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান অভিযুক্ত কাউন্সিলর। এর পরেই পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।

 

"