ভারতের উত্তর প্রদেশে বন্যায় ১৬ জনের মৃত্যু

প্রকাশ : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বেত্রা নদীর একটি চড়ে আটকা পড়া ৮ জেলেকে উদ্ধার করতে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হয়েছে ছবি এনডিটিভির ভিডিও থেকে নেওয়া

ভারতের উত্তর প্রদেশে ভারী বৃষ্টিপাত ও বন্যায় দুই দিনে ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত শনিবার ও রোববারের টানা বৃষ্টিপাতে রাজ্যের ১৬টি জেলায় বন্যা দেখা দিয়েছে বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। এসব জেলার মধ্যে শাহজাহানপুরে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এখানে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। গোয়ালিয়র বিমানঘাঁটি থেকে হেলিকপ্টার নিয়ে এসে দুর্গত এলাকায় উদ্ধার কাজ শুরু করেছে ভারতীয় বিমান বাহিনী। তারা বন্যায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া ১৪ ব্যক্তিকে ললিতপুর ও ঝাঁসি জেলা থেকে উদ্ধার করেছে।

উত্তর প্রদেশ রাজ্য সরকারের প্রকাশ করা তথ্যানুযায়ী, সিতাপুর জেলায় তিনজনের এবং আমেথি ও অরাইয়া জেলায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। ৪৬১টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। চলতি বর্ষা মৌসুমে উত্তর প্রদেশে বন্যা ও বৃষ্টিপাতে মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে গেছে। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসে উত্তর প্রদেশের পশ্চিমাঞ্চলের কয়েকটি এলাকায় ‘ভারী থেকে খুব ভারী বৃষ্টিপাত’ হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

খরা প্রবণ বুন্দেলখা-ের ললিতপুর জেলার তালবেহাত তেহশিলের একটি গ্রামে আটকা পড়া লোকজনকে উদ্ধার করেছে ভারতীয় বিমান বাহিনী। অপরদিকে ঝাঁসি জেলায় বেত্রা নদীর একটি চড়ে আটকা পড়া আট জেলেকেও উদ্ধার করেছে তারা। ব্যাপক বৃষ্টিপাতের পর নদীর পানি বেড়ে গিয়ে ওই জেলেরা আটকা পড়েছিলেন।

ভয়াবহ বন্যায় ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালায় মারাত্মক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই দেশটির উত্তর প্রদেশে বন্যা দেখা দিল। গত ১০০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যায় কেরালায় ৩৫০-এর বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

পাশাপাশি ঘরবাড়ি ভাসিয়ে নিয়ে ফসল ও অবকাঠামো ধ্বংস করে বন্যায় ১৯ হাজার ৫০০ কোটি রুপির ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ভাষ্য কেরালা সরকারের।

"