সরকারবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল রুমানিয়া

প্রকাশ : ১২ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

রুমানিয়ায় সরকারবিরোধী বড় ধরনের বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। হাজার হাজার বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশে সংঘর্ষ হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ৩০ থেকে ৫০ হাজার বিক্ষোভকারী দেশজুড়ে এই বিক্ষোভে শামিল হয়েছেন। এদের অনেকেই বিদেশ থেকে দেশে ফিরে বিক্ষোভে যোগ দিয়েছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, রাজধানী বুখারেস্টে কয়েকজন বিক্ষোভকারী বোতল ও পাথর ছুঁড়ে মারলে টিয়ারগ্যাস, পিপার স্প্রে ও গরম পানি ছিটিয়ে জবাব দেয় পুলিশ। শতাধিক বিক্ষোভকারী ও দশ পুলিশ সদস্যের চিকিৎসার প্রয়োজন পড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির জরুরি সেবা বিভাগ। বিক্ষোভকারীরা স্যোশাল ডেমোক্র্যাট (পিএসডি) দলের নেতৃত্বাধীন সরকারের পদত্যাগ চায়। তাদের দাবি, সরকার দেশের বিচার ব্যবস্থাকে দুর্বল করে ফেলেছে, কম মজুরিতে শ্রম দিতে বাধ্য করছে আর দেশ দুর্নীতিতে ছেয়ে গেছে। বিবিসি জানিয়েছে, রাজধানী বুখারেস্টে একটি সরকারি ভবনে কয়েকজন বিক্ষোভকারী ঢুকে পড়ার চেষ্টা করলে নিরাপত্তা বেষ্টনীতে ঘিরে রাখে পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের অন্য আরেকটি গ্রুপ ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও রুমানিয়ার পতাকা উড়িয়ে, ড্রাম বাজিয়ে স্লোগান দিতে থাকে।

রুমানিয়ার পিএসডি সরকারের বিরুদ্ধে বিগত কয়েক মাস ধরেই বিক্ষোভ জোরালো হচ্ছে। গত জুলাইতে প্রেসিডেন্ট ক্লাউস লোহান্নিস দেশটির দুর্নীতিবিরোধী প্রসিকিউটর লরা কদরুটা কোভেসিকে বরখাস্ত করেন। তিনি স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের রাজনৈতিক নেতাদের ঘুষ নেওয়ার অভিযোগের তদন্ত করছিলেন। শাসক পিএসডি সরকারের কাছ থেকে তাকে বরখাস্ত করতে প্রেসিডেন্ট লোহান্নিস প্রচ- চাপে ছিলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। গত বছর দুর্নীতির দায়ে কারারুদ্ধদের মুক্তি দিতে একটি ডিক্রি জারির পর রাজধানীতে প্রায় দেড় লাখ মানুষ তার প্রতিবাদে সমবেত হয়।

চলমান বিক্ষোভে শামিল হতে বিদেশ থেকে রুমানিয়ার অনেক প্রবাসীও দেশে ফিরেছেন। স্পেন থেকে স্বামীর সঙ্গে এই বিক্ষোভে যোগ দেওয়া ইলিয়ানা অ্যাঞ্জেল ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, আমরা আধুনিক রাস্তা ও স্কুল দেখতে চাই। তবে এর জন্য ডানে-বামে ঘুষ দিতে চাই না। ৩০ বছর পর নিউইয়র্ক থেকে রুমানিয়ায় ফিরেছেন ৬০ বছর বয়সী ভ্লাদ। তিনি এএফপিকে বলেন, দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতিতে কেবল শাসক শ্রেণি লাভবান হয় আর তাতেই আমার ঘৃণা হয়।

বিশ্বব্যাংকের মতে, ইউরোপের স্বল্পন্নোত দেশগুলোর একটি রোমানিয়া। দেশটির প্রায় এক চতুর্থাংশ মানুষ (প্রায় ৩০ থেকে ৫০ লাখ) দেশের বাইরে কাজ করে। প্রতি বছর তারা দেশটিতে প্রায় ৫০০ কোটি মার্কিন ডলার পাঠায়।

"