হংকংয়ে গণতন্ত্রপন্থি নেতার ছয় বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীদের শীর্ষ নেতা অ্যাডওয়ার্ড লিউংকে ছয় বছরের কারাদ- দিয়েছেন দেশটির আদালত। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, সরকারের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে সমাবেশ আয়োজন করেছিলেন তিনি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

১৯৯৭ সালে হংকংকে চীনের কাছে হস্তান্তর করে ব্রিটেন। মৌলিক আইনসংবলিত চীনের অধীনে একটি সংবিধান রয়েছে এই সাবেক ব্রিটিশ উপনিবেশটির। যার মাধ্যমে কিছু সাংবিধানিক অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়। ৫০ বছর ধরে চলা চীনের ‘এক দেশ, দুই ব্যবস্থা’ নীতির প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ওই সংবিধান। হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী নির্বাচনে জনগণের সরাসরি ভোটের ব্যবস্থা নেই। ১ হাজার ২০০ জনের একটি কমিটি এই ভোট দেওয়ার অধিকার পায়। কমিটিটি বেইজিংপন্থি হওয়ায় সব সময়ই তারা চীনের পছন্দের কাউকে হংকংয়ের প্রধান পদে দেখতে চায়। সর্বশেষ নির্বাচনেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। চীনপন্থি নেতা ক্যারি লামই নতুন নেতা হয়েছেন। এর বিপক্ষে প্রায়ই গণতন্ত্রপন্থিরা আন্দোলনে নামে। তেমনই এক আন্দোলনের অভিযোগ তুলে আটক করা হয় অ্যাডওয়ার্ডকে। গত মে মাসে তার বিরুদ্ধে অভযোগ আনা হয়, ২০১৬ সালে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি।

বিচারক অ্যানথিয়া প্যাং রায় দেওয়ার সময় বলেন, ‘লিউং সক্রিয়ভাবেই ওই আন্দোলনে জড়িত ছিল। তার কর্মকা- ছিল মারাত্মক।’

২৭ বছর বয়সী ওই নেতা জানুয়ারি থেকে জেলেই ছিলেন। পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে এক বছরের কারাভোগ করছেন। দুটি সাজাই একই সঙ্গে চলবে। লিউংয়ের সঙ্গে সঙ্গে আরো দুজন আন্দোলকারীকে সাত বছর ও সাড়ে তিন বছর কারাদ-াদেশ দেওয়া হয়। ২০১৬ সালের ওই বিক্ষোভকে ঘিরে এখন পর্যন্ত ১৬ জনকে কারাদ- দেওয়া হয়েছে।

 

"