১০০ কোটি রুপিতে বিধায়ক কিনবে বিজেপি!

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার লড়াইয়ে আছেন জেডিএসের এইচ ডি কুমারস্বামী (বাঁয়ে) ও বিজেপির বি এস ইয়েদুরাপ্পা। ছবি : সংগৃহীত

ভারতের কর্নাটক রাজ্যে সরকার গঠনের জোর তৎপরতা শুরু হয়েছে কংগ্রেস, জনতা দল (জেডিএস) এবং ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) মধ্যে। মোটা অঙ্কের টাকায় এরই মধ্যে বিধায়ক কেনাবেচার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কর্নাটকের জেডিএস প্রধান এইচডি কুমারস্বামী নিজেই জানালেন, বিজেপি কর্নাটককে সরকার গঠন করার জন্য ১০০ কোটি রুপি দিয়ে জেডিএসের বিধায়ক কিনতে চাইছে! কর্নাটক বিধানসভা নির্বাচনে ২২৪টি আসনের মধ্যে ১০৪টি আসন পেয়ে একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হয়েছে বিজেপি।

 

তবে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় ম্যাজিক ফিগার থেকে বেশ কিছুটা দূরেই আছে তারা। সেক্ষেত্রে সরকার গঠন করতে গেলে ম্যাজিক ফিগার ১১২টির মধ্যে বিজেপির দরকার আরো আটজন বিধায়ক। অন্যদিকে কংগ্রেস ও জেডিএস জোট গড়ার ফলে সংখ্যা হচ্ছে ১১৬। যা ম্যাজিক ফিগার পার করে ফেলেছে। আর এখানেই কংগ্রেস ও জেডিএসকে আটকাতে কেন্দ্রীয় সরকারের ক্ষমতা অপব্যবহার করে মোটা অঙ্কে বিধায়ক কেনাবেচার খেলা বিজেপি শুরু করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জেডিএস প্রধান কুমারস্বামী বলেন, ‘বিজেপি আমার দলের বিধায়কদের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে মন্ত্রিসভায় পদ এবং ১০০ কোটি রুপি ঘুষ দেওয়ার। বিজেপি এখন কর্নাটকে ক্ষমতা দখল করতে কোটি কোটি রুপি দিয়ে আমার দলের বিধায়কদের কিনতে চাইছে।’

কুমারস্বামী বলেন, ‘কিছুতেই বিজেপিকে সরকার গড়তে দেব না।’ কংগ্রেস ও জেডিএসের বিধায়কদের সুরক্ষা দিতে নির্বাচিত দুই দলের বিধায়কদের গত বুধবার সন্ধ্যার পরই কোনো একটি ‘রিসোর্টে’ পাঠিয়ে দেওয়া হতে পারে বলেও শোনা যাচ্ছে।

তবে কর্নাটকে কে সরকার গড়বে তা পুরোপুরি নির্ভর করছে কর্নাটকের রাজ্যপাল বাজুভাই বালার ওপর। জানা যায়, কর্নাটকের এই রাজনৈতিক সমস্যার মধ্যে পড়ে রাজ্যপাল এরই মধ্যে আইন ও সাংবিধানিক বিশেষজ্ঞদের মধ্যে আলোচনা করেছেন।

তবে কংগ্রেসের শীর্ষ নেতা গুলাম নবী আজাদ বলেন, ‘সুপ্রিমকোর্টের রায় অনুসারে যে রাজনৈতিক দলের ক্ষমতা বেশি তারাই সরকার গঠন করতে পারবে। বিজেপি যেখানে ১০৪টি আসন পেয়েছে, সেখানে আমাদের আসন সংখ্যা মিলিতভাবে ১১৬টি। রাজ্যপাল পক্ষপাত করবেন না বলেই আমাদের বিশ্বাস।’ পাশাপাশি কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কর্নাটকের রাজ্যপাল বিজেপিকে সরকার গড়ার অনুমতি দিলে তারা সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হবেন।

একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হিসেবে রাজ্যপাল বিজেপিকেই প্রথমে সরকার গঠনের জন্য ডাকতে পারেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী ইয়েদুরাপ্পা রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে সরকার গঠনের দাবি জানিয়ে এসেছেন। দাবি জানানো হয়েছে, কংগ্রেস ও জেডিএসের পক্ষ থেকেও। তবে বিজেপির বি এস ইয়েদুরাপ্পা জানিয়েছেন, সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা তাদের আছে। বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভডেকর জানিয়েছেন, কর্নাটকে সরকার গঠন নিয়ে অস্বাভাবিক উত্তেজনা তৈরির চেষ্টা চলছে।

এদিকে গুজব ছড়িয়েছে জেডিএসের পরিষদীয় দলের বৈঠকে নাকি হাজির ছিলেন না দলের দুই নবনির্বাচিত বিধায়ক রাজা ভেঙ্কটপ্পা নায়াকা এবং ভেঙ্কট রাও নাদাগৌড়া। পাশাপাশি কংগ্রেসের নয়া নির্বাচিত তিন বিধায়কের খোঁজ মিলছে না বলেও খবর পাওয়া যায়। যদিও কংগ্রেস এই খবর অস্বীকার করেছে।

"