বারিসান ন্যাশনালের শীর্ষ পদ ছাড়লেন নাজিব

প্রকাশ : ১৪ মে ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মালয়েশিয়ার ১৪তম সাধারণ নির্বাচনে বিশাল পরাজয়ের দায় নিয়ে বারিসান ন্যাশনালের সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন দেশটির সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। দ্য স্টার অনলাইন এ খবর প্রকাশ করেছে।

দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে রাজাক বলেন, আমি দ্য ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশনের (ইউএমএনও) প্রেসিডেন্ট এবং বারিসান ন্যাশনালের সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছি। ইউএমএনও হচ্ছে জোটের প্রধান দল।

ইউএমএনও পলিটিক্যাল ব্যুরো মিটিংয়ে ইউএমএনও প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডাতুকে সেরী ড. আহমদ জাহিদ হামিদীর নাম ঘোষণা করেন রাজাক। ইউএমএনও’র সহ-সভাপতি ডাতুক সিরী হিশামউদ্দীন হুসেনকে বারিসানের ডেপুটি চেয়ারম্যান ঘোষণা করা হয় এ সময়।

শীর্ষ পদ ছাড়লেও দলের সঙ্গে থেকে দলকে সব ধরনের সহযোগিতা করার আশা প্রকাশ করেছেন সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক।

নথি পাচারের শংকায় নাজিবের আত্মীয়ের বাসায় তল্লাশি : ক্ষমতা হারানোর পর দুর্নীতির অভিযোগের তীর মালয়েশিয়ার সদ্য পরাজিত সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে। এরই মধ্যে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী ও তার স্ত্রী রোশমা মানসুরের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ। অভিবাসন বিভাগের এমন ঘোষণার পর শনিবার (১২ মে) আরেক দুঃসংবাদ আসে নাজিবের জন্য। তার বিরুদ্ধে ক্ষমতায় থাকাকালে এক বিলিয়ন ডলারের দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। তাই গুরুত্বপূর্ণ সব নথি পাচার করতে পারে এমন শংকার ভিত্তিতে কুয়ালালামপুরে তার এক আত্মীয়ের বাসায় অভিযান চালিয়েছে দেশটির পুলিশ বাহিনী। মালয়েশিয়া পুলিশের দুই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দেশটির স্টার অনলাইনে এ খবর প্রকাশ পায়। সেখানে বলা হয়, একটি সরকারি গাড়ি, হাতব্যাগসহ বিভিন্নভাবে কয়েক ডজন বাক্স সরবরাহ করা হচ্ছিল। সেসব বাক্সে গুরুত্বপূর্ণ কোনো নথি থাকতে পারে।

"