স্ক্রিপল হত্যাচেষ্টা

সলসবেরিতে সেনা মোতায়েন

প্রকাশ : ১১ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পক্ষত্যাগী সাবেক রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়ে ইউলিয়াকে হত্যাচেষ্টার ঘটনা তদন্তে সহায়তা করতে যুক্তরাজ্যের সলসবেরি শহরে সশস্ত্র বাহিনীর প্রায় ১৮০ সদস্যকে মোতায়েন করা হয়েছে। রাসায়নিক যুদ্ধাস্ত্র ও সংক্রমণ দূর করার ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ এ কর্মকর্তাদের মধ্য সেনাবাহিনীর পাশাপাশি রাজকীয় নৌ ও বিমানবাহিনীর সদস্যরাও আছেন।

গত সপ্তাহে সের্গেই ও ইউলিয়া স্ক্রিপালকে দক্ষিণ ইংল্যান্ডের সলসবেরিতে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পাওয়ার পর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়; তাদের ওপর নার্ভ গ্যাস ব্যবহার করা হয়েছিল বলে পুলিশ নিশ্চিত করার পরই সেখানে সেনা মোতায়েন হলো বলে খবর বিবিসির। ব্রিটিশ পুলিশের সহকারী কমিশনার মার্ক রাউলি জানিয়েছেন, যে পুলিশ কর্মকর্তা সলসবেরির ওই ঘটনাস্থলে প্রথম উপস্থিত হয়েছিলেন তিনিও গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তার অবস্থা স্থিতিশীল, জানিয়েছেন নার্সিং বিভাগের পরিচালক লরা উইলকিনসন।

নার্ভ গ্যাস একটি মারাত্মক বিষাক্ত রাসায়নিক। এটি স্নায়ু ব্যবস্থাকে অকেজো করে দৈহিক ক্রিয়া বন্ধ করে দেয়। সাধারণত মুখ অথবা নাক দিয়েই গ্যাসটি শরীরে প্রবেশ করে, তবে চোখ বা চামড়ার মাধ্যমেও এটি শরীরে প্রবেশ করতে পারে। যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাম্বার রুড এ ঘটনাকে ?ভয়ানক অ্যাখ্যা দিয়েছেন। পক্ষত্যাগী রুশ গুপ্তচর হত্যাচেষ্টার ঘটনা নিয়ে শনিবার যুক্তরাজ্য সরকারের জরুরি কমিটি কোবরার একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে, রুডের তাতে সভাপতিতত্ব করব কথা।

বিবিসি বলছে, সলসবেরিতে মোতায়েন সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের মধ্য প্রতিরক্ষা বিভাগের রাসায়নিক জৈব তেজস্ক্রিয়তা ও পারমাণবিক কেন্দ্র এবং ২৯ এক্সপ্লোসিভ অর্ডন্যান্স গ্রুপের সদস্যরাও আছেন, যারা বোমা নিষ্ক্রিয়ে পারদর্শী। ঝুঁকিপূর্ণ পদার্থ প্রতিরোধী পোশাক পরা সেনাসদস্যদের শনিবার সলসবেরি হাসপাতালে গত রোববার থেকে পড়ে থাকা পুলিশের একটি গাড়িকে পরীক্ষা করতে দেখা গেছে; পরের দিকে সেনাবাহিনীর একটি ট্রাকে তেরপলে ঢেকে ওই গাড়িটিকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

কর্মকর্তারা ৬৬ বছর বয়সী স্ক্রিপালের গাড়ির নিরাপত্তাও খতিয়ে দেখছেন। সলসবেরি গোরস্তানে সমাহিত স্ক্রিপালের ছেলের কবরের পাশেও বিশেষজ্ঞ কর্মকর্তাদের একটি তাঁবু দেখা গেছে। পক্ষত্যাগী সাবেক রুশ গুপ্তচরের ছেলে গত বছর মারা গিয়েছিলেন। নার্ভ গ্যাসের সংক্রমণের শঙ্কায় যে অ্যাম্বুলেন্সে করে স্ক্রিপাল ও তার মেয়েকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে সেটিসহ ঘটনাস্থলে যাওয়া গাড়ি ও সেখানকার বিভিন্ন বস্তু সরিয়ে নিতে সেনাসদস্যরা পুলিশের কাউন্টার টেররিজম বিভাগকে অনুরোধ করেছেন। যে বেঞ্চে স্ক্রিপলা ও ইউলিয়াকে পাওয়া গেছে বিশেষজ্ঞ তদন্ত কর্মকর্তারা সেটি পরীক্ষা করেছেন; রুশ গুপ্তচরের বাড়িও ঘিরে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় জনগণের জন্য ‘কোনো ঝুঁকি নেই’ বলে এক বিবৃতিতে আশ্বস্ত করেছে মেট্রোপলিটন পুলিশ।

স্ক্রিপাল সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করতেন বলে রাশিয়া থেকে নির্বাসিত ভেলেরি মরোজোভ বিবিসিকে জানিয়েছেন। সাবেক গুপ্তচর কর্নেল স্ক্রিপাল ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থার চরে পরিণত হওয়ার অভিযোগে রাশিয়ায় গ্রেফতার হয়েছিলেন। বিচারে ১৩ বছরের কারাদন্ড হলেও আটক গুপ্তচর বদলাবদলিতে ২০১০ সালে তাকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেওয়া হয়। মুক্তি পেয়েই স্ক্রিপাল ব্রিটেনে চলে যান। স্ক্রিপালের কন্যা ইউলিয়া মস্কোতে বসবাস করলেও বাবাকে দেখতে তার নিয়মিত যুক্তরাজ্যে যাতায়াত ছিল। পুলিশের প্রকাশ করা সিসিটিভি ফুটেজে অসুস্থ হয়ে পড়ার কিছুক্ষণ আগে পিতা-কন্যাকে ওই এলাকার জিজি রেস্তোরাঁর সামনের গলি ধরে হেঁটে আসতে দেখা গেছে। ঘটনার পর সতর্কতা হিসেবে রেস্তোরাঁটি ও পাশের বিশপস মিল পাব বন্ধ করে দেওয়া হয়।

সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার কন্যা ইউলিয়াকে নার্ভ গ্যাস প্রয়োগ করে মারার চেষ্টা করা হয়েছে, পুলিশের এমন ঘোষণা রাশিয়ার আরেক সাবেক গুপ্তচর আলেকজান্দার লিটভিনেঙ্কোকে বিষ প্রয়োগের ঘটনাটিকেও সামনে নিয়ে এসেছে। ২০০৬ সালে লন্ডনে লিটভিনেঙ্কোর চায়ের সঙ্গে তেজস্ক্রিয় পোলোনিয়াম মিশিয়ে দিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছিল। তেজস্ক্রিয় পোলোনিয়াম ও নার্ভ গ্যাসের মতো উপাদান অপরাধী দলগুলো বা সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো সাধারণত তৈরি করতে পারে না; এগুলো সাধারণত সরকারি নিয়ন্ত্রণে বিশেষায়িত গবেষণাগারে তৈরি করা হয়।

স্ক্রিপাল ও তার মেয়েকে হত্যাচেষ্টায় রাশিয়ার হাত থাকতে পারে এমন ইঙ্গিতের মধ্যে মস্কো এ ঘটনার সঙ্গে কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতার কথা অস্বীকার করেছে। রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ পক্ষত্যাগী সাবেক গুপ্তচর হত্যাচেষ্টায় তার দেশের জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন।

"