মন্দিরের সামনে ভিক্ষা করে তার উন্নয়নে আড়াই লাখ টাকা দান!

প্রকাশ : ২২ নভেম্বর ২০১৭, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মন্দিরের সামনেই প্রায় এক দশক ধরে ভিক্ষা করতেন অশীতিপর বৃদ্ধা সীতালক্ষ্মী। আজ সেই মন্দিরের উন্নয়নে আড়াই লাখ টাকা দান করলেন ৮৫ বছরের সেই বৃদ্ধা। এতে আপ্লুত হয়েছেন পুণ্যার্থীরা, তারা ওই বৃদ্ধা ভিক্ষুকের পক্ষে জয়ধ্বনি দিচ্ছেন।

ঘটনাটি ভারতের। মাইসুরুর ইয়াদাভাগরিতে ভাই ও ভাইয়ের বউয়ের সঙ্গে থাকেন সীতালক্ষ্মী। তবে কোনো দিন তাদের গলগ্রহ হয়ে উঠতে চাননি। সেজন্যই আগে লোকের বাড়িতে কাজ করতেন। তবে বয়স ও শরীর সেই ক্ষমতা কেড়ে নেওয়ায় বাধ্য হয়ে তিনি ভন্টিকোপ্পালে প্রসন্ন অঞ্জনেয় স্বামীর মন্দিরের সামনে বসে ভিক্ষা করা শুরু করেন। এভাবে কেটে গেছে প্রায় এক দশক। আজ সেই বৃদ্ধা তার অর্জিত অর্থে হনুমান জয়ন্তীতে প্রতিবছর ভক্তদের প্রাসাদ বিতরণ ও অন্যান্য উন্নতির কাজে মন্দির কর্তৃপক্ষকে দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা দান করেছেন।

গণেশ উৎসবের সময় তিনি মন্দিরকে দান করেছিলেন ৩০ হাজার টাকা। আর দিন কয়েক আগে মন্দিরের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানকে ব্যাংকে নিয়ে গিয়ে তিনি দান করেন দুই লাখ টাকা। সব মিলিয়ে তিনি এ মন্দিরকে আড়াই লাখ টাকারও বেশি দান করেছেন।

মন্দিরের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান এম বাসবরাজ জানালেন, তিনি কখনো কোনো ভক্তের থেকে টাকা চান না। যে যা দেন, শুধু সেটা গ্রহণ করেন। তিনি সবার থেকে আলাদা। বিধায়ক তাকে সংবর্ধনাও দিয়েছেন। তিনি এভাবে তার টাকা মন্দিরে দান করে দেখে ভক্তরাও তাকে এখন বেশি করে টাকা দিচ্ছেন। অনেকে তার থেকে আশীর্বাদও চান। সীতালক্ষ্মীর এই উদারতায় গর্বিত তার প্রতিবেশীরাও।

"