মুক্তিযুদ্ধে গণহত্যা

বাঙালি সেনা কর্মকর্তার অভিযোগ আমলে

প্রকাশ : ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ০০:০০

আদালত প্রতিবেদক

মুক্তিযুদ্ধের সময় বাঙালিদের সহযোগিতা না করে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর পক্ষে কুমিল্লায় হত্যাযজ্ঞে লিপ্ত হওয়া ক্যাপ্টেন (অব.) মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) আমলে নিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। একই সঙ্গে এক বছর তিন মাস ধরে কারাগারে থাকা শহীদুল্লাহকে শর্ত সাপেক্ষে জামিন দিয়েছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার চেয়ারম্যান বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেন। আদালতে আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী মাসুদ রানা। প্রসিকিউশনের পক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম ও আবুল কালাম।

পরে মাসুদ রানা বলেন, স্বাস্থ্যগত কারণে শর্ত সাপেক্ষে আদালত শহীদুল্লাহকে জামিন দিয়েছেন। দুই লাখ টাকার বন্ডে শর্তগুলো হলোÑপাসপোর্ট জমা দিতে হবে, ঢাকায় অবস্থান করতে হবে, মিডিয়ায় কথা বলা যাবে না ও আদালতের আদেশে হাজির থাকতে হবে। এর আগে ৩১ অক্টোবর আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করে প্রসিকিউশন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের মুখোমুখি হওয়া সেনা কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রথম কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার আমিরাবাদ এলাকার জিন্নত আলীর ছেলে শহীদুল্লাহ (৭৫) গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছেন। তার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে দাউদকান্দিতে হত্যা, আটক, নির্যাতন, অপহরণ, লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগের তিনটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে তিনজনকে হত্যা, ১৩ জনকে আটক ও নির্যাতন এবং পাঁচটি বাড়িতে লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগে ধ্বংসের অভিযোগ।

চলতি বছরের ২১ মার্চ শহীদুল্লাহর বিরুদ্ধে তদন্তের চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেন ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। ওই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ তৈরি করে ট্রাইব্যুনালে দাখিল করেন প্রসিকিউশন।

"