মুক্তামনির জন্য উপহার পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ : ১২ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিরল রোগে আক্রান্ত মুক্তামনির জন্য চকলেট পাঠিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বার্ন ইউনিটে গিয়ে মুক্তামনির হাতে চকলেট তুলে দেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক ডা. জুলফিকার লেনিন। ওই সময় মুক্তামনির বাবা ইব্রাহীমের হাতে মেয়েকে খেলনা কিনে দেওয়ার জন্য নগদ ১০ হাজার টাকাও তুলে দেওয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে এসেছি। মুক্তামনির পুরো বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেছি মুক্তামনির বতর্মান অবস্থা। শনিবার (আজ) অপারেশনের বিষয়ে দোয়াও চেয়েছি, যাতে আমরা সফল হতে পারি।’

এরই পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী যেহেতু ব্যস্ততার কারণে আসতে পারেননি, তাই তার প্রতিনিধি হিসেবে কার্যালয়ের ডা. জুলফিকার লেনিনকে পাঠিয়েছিলেন। তিনি সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন চকলেট। রাত বেশি হওয়ায় খেলনা না পেয়ে মুক্তামনির বাবার কাছে নগদ ১০ হাজার টাকা দিয়ে গেছেন খেলনা কেনার জন্য।

সাতক্ষীরা জেলার সদর উপজেলার কামারবায়সা গ্রামের মুদি দোকানি ইব্রাহীম হোসেনের মেয়ে মুক্তামনি (১২)। জন্মের দেড় বছর পর মুক্তামনির হাতে একটি ছোট মার্বেলের মতো গোটা দেখা দেয়। এরপর থেকে তা বাড়তে থাকে। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে নিলেও তার কোনো চিকিৎসা হয়নি। তার আক্রান্ত ডান হাত এখন ছোট আকারের গাছের গুঁড়ির রূপ নিয়ে প্রচন্ড ভারী হয়ে উঠেছে। এতে পচন ধরেছে, পোকাও জন্মেছে। দিন-রাত চুলকানি ও যন্ত্রণায় অস্থির হয়ে থাকে মুক্তামনি।

এই রোগ তার দেহের সর্বত্র ছড়িয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ডাক্তাররা। সম্প্রতি মুক্তামনির এই রোগ নিয়ে দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এরপরই তাকে ঢাকায় পাঠিয়ে সরকারি ব্যবস্থাপনায় চিকিৎসার উদ্যোগ নিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

"