দুর্নীতিরোধে শিক্ষামন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চায় মাউশি

প্রকাশ : ১৭ জুলাই ২০১৭, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তিতে মাঠপর্যায়ে ব্যাপক দুর্নীতি বেড়েছে মর্মে শত শত অভিযোগ পেয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) কর্মকর্তারা। গতকাল রোববার মাউশির সভাকক্ষে আয়োজিত দিকনির্দেশনামূলক এক সভায় শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ উপস্থিত হলে তারা মন্ত্রীর কাছে এমপিও দুর্নীতি সমস্যার সমাধান চান।

অনলাইন এমপিওতে দুর্নীতি প্রসঙ্গে সভায় শিক্ষামন্ত্রী তার বক্তব্যে কর্মকর্তাদের কাছে জানতে চান ‘আপনারা কী পদক্ষেপ নিয়েছেন তা আমাকে জানান। নাম দেন আমি তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেব?’ মাউশির মহাপরিচালক এস এম ওয়াহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় শিক্ষাসচিব (মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা) সোহরাব হোসাইনসহ মাউশির বিভিন্ন শাখার প্রধান ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় অধিদফতরের বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

প্রশ্নোত্তর পর্বে মাউশির পরিচালক (মনিটরিং) সেলিম মিয়া অভিযোগ করে বলেন, ‘অনলাইনে এমপিওতে মাঠপর্যায়ে সবচেয়ে বেশি দুর্নীতি হচ্ছে। উপজেলা, জেলা ও উপ-পরিচালকের দফতরে দুর্নীতি হচ্ছে।’ আরো দুজন কর্মকর্তা একই অভিযোগ করেন। এরপর প্রধান অতিথির বক্তব্যে কর্মকর্তাদের উদ্দেশে নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘আপনারা সৃজনশীল কাজ করুন, এ ক্ষেত্রে কোনো ভুল হলে বা ক্ষতি হলেও এর দায় আমি নেব।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘মাউশিরর কর্মকা-ে অনেক সাফল্য রয়েছে। এ কাজগুলোকে এগিয়ে নিতে হবে। এ সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।’ মাউশির কাজের মান আরো উন্নত করার জন্য মন্ত্রী বিভিন্ন নির্দেশনা দেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘মাউশির কর্মকা- আরো গতিশীল করতে হবে। কাজে স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সততা ও নিষ্ঠা প্রমাণ করতে হবে। কর্মকর্তাদের দক্ষতা আরো বাড়াতে হবে এবং এই দক্ষতা কাজে লাগাতে হবে।’ তিনি মনিটরিং কার্যক্রম আরো জোরদার করার জন্য নির্দেশ দেন।

তিনি বলেন, ‘সৃজনশীল দৃষ্টিভঙ্গি কাজে লাগাতে হবে। প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে নতুন নতুন কৌশল উদ্ভাবন করতে হবে।’ প্রকল্প পরিচালকদের কাজ রিভিউ করে প্রকল্পগুলোয় যোগ্য প্রকল্প পরিচালক নিয়োগ দিতে তিনি সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

"