প্রথম কলাম

১০ কোটির ঘুষে ধর্ষণ মামলায় সাবেক মন্ত্রীর জামিন

প্রকাশ : ২০ জুন ২০১৭, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ কোটি টাকা ঘুষ দিয়ে ধর্ষণে মামলায় জামিন পেয়েছেন গায়ত্রী প্রজাপতি। উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মন্ত্রী তিনি। এলাহাবাদ হাইকোর্ট নিযুক্ত বিশেষ তদন্তকারী দল এমন তথ্য সামনে আনল। জানা গেছে, রীতিমতো ষড়যন্ত্র করে ধর্ষণ মামলায় গায়ত্রী প্রজাপতিকে জামিন পাইয়ে দেওয়া হয়েছিল। যাতে জনাকয়েক বরিষ্ঠ বিচারপতিও সামিল ছিলেন। তাদের মোট ১০ কোটি টাকা ঘুষ খাইয়েছিলেন অখিলেশ যাদব সরকারের প্রাক্তন এই মন্ত্রী। ২০১৪ সালে এক মহিলা ও তার অপ্রাপ্তবয়স্কা মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে, এ বছরের শুরুতে গায়ত্রী প্রজাপতিসহ অন্য ছয়জনের বিরুদ্ধে শিশু সুরক্ষা আইনে (?পকসো)? মামলা দায়েরের নির্দেশ দেন সুপ্রিম কোর্ট। ১৭ ফেব্রুয়ারি মামলা দায়ের হয়। সেই সময় উত্তরপ্রদেশের অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টির মন্ত্রী ছিলেন তিনি। প্রায় এক মাস গা ঢাকা দিয়ে থাকার পর, ১৫ মার্চ লক্ষেèৗর আসিয়ানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বাকি ছয়?জনের নাগাল আগেই মিলেছিল। তবে গ্রেফতার হওযার পর সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেন প্রজাপতি। তাকে ফাঁসানোর জন্য বিরোধীরা চক্রান্ত করেছে বলে দাবি করেন। আদালতের সামনে সত্যিটা তুলে ধরতে, অপ্রাপ্তবয়স্কা অভিযোগকারিনী এবং নিজের নার্কো পরীক্ষার দাবিও তোলেন তিনি। কিন্তু মামলাটি আদালতে উঠলে, ২৫ এপ্রিল তার জামিন মঞ্জুর করেন জেলা ও দায়রা আদালতের অতিরিক্ত বিচারক ওপি মিশ্র। তার সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেন এলাহাবাদ হাইকোর্টের মুখ্য বিচারপতি দিলীপ বি ভোঁসলে। তিনি বলেন, ‘?অবসরের আর মাত্র তিন সপ্তাহ বাকি ছিল ওপি মিশ্রর। সেই সময়, আচমকাই শিশু সুরক্ষা আইনের আওতায় মামলাটির শুনানির দায়িত্ব দেওয়া হয় তাকে। গোটা ব্যাপারটা সন্দেহজনক।’? তার নির্দেশেই বিশেষ তদন্ত কমিটি গড়া হয়।

"