এত টাকা কীভাবে খরচ করব?

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৭, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

বিশ্বের অন্যতম ধনী আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস। বর্তমানে জেফ বেজোসের সম্পদের পরিমাণ ৭৬ বিলিয়ন বা সাত হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার। তার এই সম্পদের কিছু অংশ দাতব্য কাজে খরচ করতে চান তিনি। কিন্তু কীভাবে তা খরচ করবেন, সে ধারণা খুঁজছেন। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে সরাসরি প্রশ্ন করেছেন- কীভাবে আমার অর্থ দান করব? গত বৃহস্পতিবার করা ওই টুইটটিতে মানুষ প্রচুর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। মাত্র তিন ঘণ্টায় চার হাজারের বেশি উত্তর পেয়েছেন তিনি। খবর বিবিসির।

টুইটে বেজোস বলেছেন, মানুষের কাজে লাগে, এমন দাতব্য কাজে অর্থ দিতে চান তিনি। যদি কারো কাছে কোনো ধারণা থাকে তবে তা যেন টুইটে তাকে জানান।

বেজোসের এ অনুরোধের বিষয়টি তার মধ্যে পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিচ্ছে। এর আগে তিনি মহাকাশ অভিযানের মতো দীর্ঘমেয়াদি বিভিন্ন প্রকল্পে বিনিয়োগ করেছেন বেশি। কিন্তু দাতব্য কাজ নিয়ে খুব বেশি আলোচনায় আসেননি।

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজনের প্রধান নির্বাহী জেফ বেজোসের ব্লু অরিজিন নামের মহাকাশবিষয়ক উদ্যোগ রয়েছে। মহাকাশ যাত্রায় খরচ কমাতে তিনি এ প্রতিষ্ঠানটিতে বিনিয়োগ করছেন। এখন পর্যন্ত দাতব্য কাজের ক্ষেত্রে বেজোস তার মা-বাবার চালানো একটি সংস্থাকে সাহায্য করেছেন। ওই সংস্থাটি শিক্ষা নিয়ে কাজ করে। এ ছাড়া বেজোসের পরিবার থেকে চার কোটি ডলার সিয়াটলের ফ্রেড হাচিনসন ক্যানসার গবেষণা কেন্দ্রে দেওয়া হয়েছে। মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গের মতো সরাসরি কোনো দাতব্য কাজের সঙ্গে যুক্ত নন বেজোস। বিশ্বের সবচেয়ে ধনি ব্যক্তিদের মধ্যে ১৬৭ জন তাদের মোট সম্পদের অর্ধেক দাতব্য কাজে লাগানোর যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তার মধ্যে বেজোসের নাম নেই। বেজোসকে তার অর্থ খরচের জন্য টুইটারে নানা রকম পরামর্শ দিয়েছেন অনেকেই। এর মধ্যে আছে শিশুদের জন্য খাদ্য কর্মসূচি, বন রক্ষা ও গৃহহীনদের জন্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা প্রভৃতি।

"