অমিতাভ-অভিষেকের পর ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যাও করোনা পজিটিভ

প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০২০, ০০:০০

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা থেকে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অমিতাভ বচ্চনের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে দ্বিতীয় রিপোর্টেও তার করোনা পজিটিভই এসেছে। এরই মধ্যে বচ্চন পরিবারের জন্য ফের দুঃসংবাদ নেমে এলো। প্রথমে ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, আরাধ্যা বচ্চনের রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও গতকাল রোববার দুপুরে খবর এসেছে তারাও করোনা পজিটিভ হয়েছেন। যদিও জয়া বচ্চন এবং অমিতাভ-কন্যা শ্বেতা নন্দার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে জানা গেছে। শ্বেতার দুই সন্তান অগস্ত্য এবং নভ্যা নভেলির করোনা রিপোর্টও নেগেটিভ এসেছে। প্রশাসনের তরফ থেকে এরই মধ্যে স্যানিটাইজ করা হচ্ছে বচ্চন পরিবারের বিলাসবহুল আবাসন ‘জলসা’।

গত শনিবার অমিতাভ বচ্চন ও অভিষেক বচ্চনের রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু জানা গিয়েছিল অমিতাভের স্ত্রী জয়া বচ্চন ও পুত্রবধূ ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। রিপোর্ট নেগেটিভ আসে অমিতাভ-নাতনি আরাধ্যার রিপোর্টও। কিন্তু গতকাল রিপোর্টে ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যাও পজিটিভ হলেন।

মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ টোপে জানিয়েছেন, মৃদু উপসর্গ দেখা দেওয়ায় বচ্চন পরিবারের সদস্যরা র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষা করান। তাতেই অমিতাভ এবং অভিষেক কোভিড পজিটিভ বলে জানা যায়।

বিএমসি সূত্রে খবর, শনিবার ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যার যে টেস্ট করা হয়েছিল অ্যান্টিজেন টেস্ট। তাতে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। কিন্তু আইসিএমআরের নির্দেশ হলো, অ্যান্টিজেন টেস্টে কারো রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও তা শেষ কথা নয়। করাতে হবে আরটিপিসিআর টেস্ট। গতকাল সেই আরটিপিসিআর টেস্ট রিপোর্টেই করোনা পজিটিভ আসেন ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যাও। তবে ঐশ্বর্য, আরাধ্যাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে কিনা তা নিয়ে এখনো কোনো খবর মেলেনি।

অমিতাভ ও অভিষেকের রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই মুম্বাইয়ের মেয়র কিশোরী পেদনেকর জানিয়েছিলেন, জয়া, ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্যাকে আইসোলশনে থাকতে বলা হয়েছে। অমিতাভের বাংলো জলসাসহ তিনটি বাংলোই জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে। সেইসঙ্গে বাংলোর গেটে ঝোলানো হয়েছে কনটেইনমেন্ট জোনের নোটিশ।

সূত্রের খবর, গত কয়েক দিনে অমিতাভ ও অভিষেকের সংস্পর্শে এসেছিলেন প্রায় ১০০ জন। তাদের খুঁজে বের করা হচ্ছে। তাদের প্রত্যেকেরই করোনা পরীক্ষা করা হতে পারে বলে খবর। মুম্বাইয়ের নানাবতী হাসপাতালের তরফে রোববার জানানো হয়েছে, বর্তমানে আইসোলেশনে রয়েছেন বিগ বি। তার সামান্য উপসর্গ রয়েছে। কিন্তু তিনি স্থিতিশীল রয়েছেন। হাসপাতালের বক্তব্যে কিছুটা স্বস্তিতে অমিতাভ বচ্চনের ফ্যানেরা।

নোভেল করোনার প্রকোপ সামাল দিতে ২৪ মার্চ দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় সরকার। তার জেরে বলিউডের যাবতীয় শুটিং বন্ধ। সম্প্রতি আনলক পর্ব শুরু হলে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরতে শুরু করে মায়ানগরী। কাজে ফেরেন অভিষেক বচ্চনও। কয়েক দিন আগেই নিজের ওয়েবসিরিজ, ব্রিদ: ইনটু দ্য শ্যাডোজের জন্য একটি ডাবিং স্টুডিও দেখা যায় তাকে।

অভিষেক কোভিড-১৯ পজিটিভ জানার পর ওই স্টুডিওটি আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে। গত ১০ দিনে যে বা যারা তার সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাদের ডাক্তারি পরীক্ষা করাতে অনুরোধ জানিয়েছেন অমিতাভ বচ্চন নিজে।

 

"