চীনে তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল

করোনার টিকা

প্রকাশ : ১৩ জুলাই ২০২০, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

চীনা প্রতিষ্ঠান ক্যানসিনো বায়োলজিকস মানবদেহে করোনাভাইরাসের টিকা প্রয়োগে তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে রাশিয়া, ব্রাজিল, চিলি ও সৌদি আরবের মতো দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। ক্যানসিনো বায়োলজিকসের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক কিউ দংজু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কিউ দংজু বলেন, ‘আমরা তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষার জন্য রাশিয়া, ব্রাজিল, চিলি ও সৌদি আরবের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। এটি এখনো আলোচনার পর্যায়ে রয়েছে।’ শনিবার চীনের পূর্বাঞ্চলীয় জিয়াংসু প্রদেশে এন্টিভাইরাল ড্রাগ ডেভেলপমেন্ট-বিষয়ক এক সম্মেলনে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

যৌথভাবে এই টিকা উদ্ভাবন করেছে ক্যানসিনো বায়োলজিকস এবং একাডেমি অব মিলিটারি মেডিকেল সায়েন্সের বেইজিং ইনস্টিটিউট অব বায়োটেকনোলজি। টিকাটির নাম দেওয়া হয়েছে অ্যাড৫-এনকভ। এটি উদ্ভাবনে নেত"ত্ব দি"েছন একাডেমি অব মিলিটারি মেডিকেল সায়েন্সেসের চেন ওয়েই। তার নেত"ত্বাধীন একটি টিম এ নিয়ে কাজ করছে। গত মার্চে চীনে এ ভ্যাকসিনটির প্রথম ধাপের ট্রায়াল সম্পন্ন হয়। ইতোমধ্যেই ক্যানসিনোর এ ভ্যাকসিন সেনাসদস্যদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে চীনের সামরিক বাহিনী।

স্টক এক্সচেঞ্জে দাখিল করা নথিতে ক্যানসিনো উল্লেখ করেছে, তাদের ভ্যাকসিনটি কিনিক্যাল ট্রায়ালে নিরাপদ এবং নভেল করোনাভাইরাসে স"ষ্ট রোগ প্রতিরোধের সম্ভাবনা হাজির করেছে। কোম্পানিটি জানিয়েছে, চীনা সামরিক বাহিনী সেন্ট্রাল মিলিটারি কমিশন ২৫ জুন এক বছরের জন্য ভ্যাকসিনটি ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে। চীনের বিশাল সামরিক বাহিনীতে কীভাবে এই ভ্যাকসিনের প্রয়োগ হবে, তা স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ও এ বিষয়ে কিছু জানায়নি।

বিশ্বে আরো ১৩১টি ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেন্ট প্রাক-কিনিক্যাল ট্রায়ালে রয়েছে। কিনিক্যাল ট্রায়ালে বিভিন্ন ধাপে থাকা কোনো ভ্যাকসিনই এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে বাণিজ্যিক ব্যবহারের অনুমোদন পায়নি।

প্রসঙ্গত, বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশ ও কোম্পানি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের টিকা উদ্ভাবনের প্রচেষ্টা চালিয়ে যা"েছ। চীনের উহানে প্রথম ছড়ানো ভাইরাসটিতে বিশ্বের ১ কোটি ৩১ লাখেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত ও ৫ লাখ ৭০ হাজারেও বেশি মানুষের ম"ত্যু হয়েছে।

 

"