বিনা ভাড়ায় আনল ডাক বিভাগ

রংপুরের ‘হাঁড়িভাঙা’ ঢাকার বাজারে

প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০২০, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার প্রান্তিক কৃষকদের উৎপাদিত ঐতিহ্যবাহী হাঁড়িভাঙ্গা আম বিনা ভাড়ায় রাজধানীর পাইকারি বাজারে পরিবহন শুরু করেছে ডাক অধিদফতর। একই সঙ্গে বিআরটিসি সামান্য ভাড়ার বিনিময়ে মিঠাপুকুরের আম পরিবহন কার্যক্রম চালু করেছে। ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের নির্দেশে বিনা মাশুলে এই সেবাটি চালু করা হয়।

মন্ত্রী গতকাল বুধবার দুপুরে ঢাকায় তার দফতর থেকে জুম ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে রংপুরের মিঠাপুকুর থেকে বিনা মাশুলে রাজধানীতে মৌসুমি ফল পরিবহন সেবা উদ্বোধন করেন।

রংপুর জেলা প্রশাসক মো. আসিব আহসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এইচ এন আশিকুর রহমান, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. নূর-উর-রহমান, ডাক অধিদফতরের মহাপরিচালক এস এস ভদ্র. কৃষি বিপণন অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. ইউসুফ, তরুণ নেতা রাশেক রহমান, ডাক বিভাগের পরিচালক অসিত কুমার, মিঠাপুকুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুন ভুইয়া এবং কৃষক প্রতিনিধি মতিনুর রহমান সরকার অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন। হাঁড়িভাঙ্গা। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে এসব মৌসুমি ফল রাজধানীর বিভিন্ন মেগাশপ ও পাইকারি বাজারে বিপণন করা হবে। বিক্রয়লব্ধ টাকা কোনো মধ্যস্বত্বভোগী ছাড়াই সংশ্লিষ্ট কৃষকের হাতে পৌঁছে যাবে। দেশব্যাপী ডাক পরিবহনে নিয়োজিত ঢাকা ফেরত গাড়িগুলো বিনা মাশুলে প্রান্তিক কৃষকের পণ্য পরিবহনে সরকারের বাড়তি কোনো খরচেরও প্রয়োজন হবে না।

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, প্রান্তিক কৃষকদের বিনা ভাড়ায় পণ্য পরিববহনের বর্তমান এই ব্যবস্থাটি আপৎকালীন তবে আমরা এটি স্থায়ী পদ্ধতিতে রূপান্তরের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। আমরা কৃষকের পণ্য মাশুল ছাড়া পরিবহনের যে যাত্রাটি শুরু করেছি তা আমরা অব্যাহত রাখব।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব বলেন, প্রান্তিক কৃষকের দোরগোড়ায় নিরবচ্ছিন্ন ডাকসেবা পৌঁছে দিতে ডাক বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করছে।

 

"