করোনা মোকাবিলায় ভারতে সাড়ে ৬ লাখ কিট পাঠাচ্ছে চীন

প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতকে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় র‌্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিটসহ ৬ লাখ ৫০ হাজার কিট পাঠাচ্ছে চীন। চীনে নিযুক্ত ভারতের দূত বিক্রম মিশ্রর বরাতে গতকাল বৃহস্পতিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে কলকাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম কলকাতা টোয়েন্টিফোর। দেশটির সংবাদ সংস্থা পিটিআই এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গুয়াংঝু বিমানবন্দর থেকে ভারতের উদ্দেশে পাঠানো হয়েছে মেডিকেল কিট। ২ মিলিয়নের বেশি টেস্ট কিট আগামী ১৫ দিনে ভারতে পাঠাবে চীন।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে চীনে নিযুক্ত ভারতের দূত বিক্রম মিশ্র টুইট করে জানান, ‘র‌্যাপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিটসহ মোট ৬ লাখ ৫০ হাজার কিট ভারতকে পাঠাচ্ছে চীন। আজ গুয়াংঝু বিমানবন্দর থেকে ভারতের উদ্দেশে এসব পাঠানো শুরু হয়েছে।’ গত বছরের ডিসেম্বরের শেষের দিকে চীনের উহানে প্রথম শনাক্ত করা হয় করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। এরপর দেশটির ৩ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ নিয়েছে এই ভাইরাস। আক্রান্ত হয়েছে ৮২ হাজারের বেশি।

তবে পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হওয়ায় একে একে খুলতে শুরু করেছে চীনের শিল্প-কারখানাগুলো। তবে বর্তমান তারা বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে চিকিৎসা সামগ্রী তৈরিতে। বিশেষ করে বিশ্বসহ ভারতকে ভেন্টিলেটর, পিপিই কিট সরবরাহ করতে চায় চীন। এর আগে প্রথম দুই ধাপে কিটসহ চিকিৎসা সামগ্রী ভারতকে পাঠায় চীন। ভারতের লকডাউনে করোনা হটস্পটগুলোতে টেস্ট করতে এগুলো পাঠানো হয়। ২১ দিন শেষে ভারতে লকডাউনের সময়সীমা ৩ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সকালে দেশটিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৩৮০ জন, আরা মারা গেছে ৪১৪ জন।

এর আগে গত মঙ্গলবার বিক্রম মিশ্র জানিয়েছিলেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য ১৫ মিলিয়ন পিপিই কিটের অর্ডারের পাশাপাশি ৩ মিলিয়ন করোনা টেস্টিং কিট পাঠাতে চীনকে অনুরোধ করে ভারত। তারই অংশ হিসেবে কিট পাঠাচ্ছে চীন। বিশ্বে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় চীনের চিকিৎসা সামগ্রীর চাহিদাও বেড়েছে। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চীন সরকার অর্ডার মেনে প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো রফতানি করতে প্রস্তুত আছে। তবে সব দেশই তাদের পছন্দ মাফিক কোম্পানিকে এজন্য বেছে নিতে পারবেন বলেও জানায় মন্ত্রণালয়।

 

"