প্রস্তুত চিকিৎসক-নার্স

করোনা পরীক্ষায় রাজশাহীতে হচ্ছে আরেকটি ল্যাব

প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

রাজশাহী ব্যুরো

করোনার নমুনা পরীক্ষার জন্য রাজশাহীতে আরেকটি ল্যাব প্রস্তুত করা হচ্ছে। এরই মধ্যে আরেকটি পলিমার চেইন রিঅ্যাকশন (পিসিআর) মেশিন এসেছে। দ্বিতীয় ল্যাবটি স্থাপন করা হবে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের হাইডিপেডন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ)। এ জন্য এরই মধ্যে সেখানে চিকিৎসাধীন রোগীদের অন্যস্থানে

সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

রামেক হাসপাতাল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা গতকাল রোববার দুপুরে এইচডিইউ ইউনিট পরিদর্শন শেষে তথ্যটি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, উত্তরাঞ্চলের মানুষের চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতাল একটা ভরসার জায়গা। সে জন্য এর সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি মনে করেন, সন্দেহজনক করোনা রোগীর যত বেশি পরীক্ষা করা যাবে পরিস্থিতি মোকাবিলা করা তত বেশি সহজ হবে। সেজন্য তিনি আরেকটি ল্যাব স্থাপনের দিকে মনোযোগী হন। তারা আরেকটি পিসিআর মেশিনও আনতে পেরেছেন। স্বল্প সময়ের মধ্যে দ্বিতীয় ল্যাব চালু করা সম্ভব হবে বলেও মনে করেন তিনি।

এইচডিইউ ইউনিট পরিদর্শনকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিলুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ভাইরোলজি বিভাগের ল্যাবে প্রতিদিন ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে। তবে এ পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি। তারপরেও সতর্ক রয়েছেন সবাই। চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত আছেন হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সরা। এরই মধ্যে চিকিৎসক ও নার্সদের কয়েকটি দলকে প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রস্তুত করা হয়েছে।

আর রামেক হাসপাতালে করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগের রোগী এলে যেন চিকিৎসা করা যায় তার জন্য এইচডিইউ ভবনটিকেই প্রস্তুত করা হচ্ছে। এই ভবনেই রয়েছে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ)। ভেন্টিলেটরের মাধ্যমে সেখানে রোগীদের কৃত্রিম শ্বাস-প্রশ্বাস নিশ্চিত করারও ব্যবস্থা রয়েছে। ভেন্টিলেটরের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কর্তৃপক্ষ।

 

"