ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম হলেই বরখাস্ত, মামলা

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণে অনিয়ম ও দুর্নীতি করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রয়োজনে বরখাস্ত ও ফৌজদারি মামলাও করা হবে। গতকাল শনিবার রাজধানীর মিন্টো রোডে তার সরকারি বাসভবনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও করোনাভাইরাসজনিত প্রতিকূল অবস্থা মোকাবিলা করছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক আমরা সবাই একযোগে কাজ করছি। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এই দুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে বলে আমি আশা করি।

এদিকে স্থানীয় সরকার বিভাগের জারি করা আদেশে উল্লেখ করা হয়, দেশে করোনাভাইরাসের কারণে শহর ও গ্রামে বিপুলসংখ্যক মানুষের আয়-রোজগারের পথ বন্ধ হয়ে পড়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের খাদ্য-সহায়তা হিসেবে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দফতর, সংস্থা ও স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলো নিজস্ব অর্থায়নে চাল, নগদ অর্থ, শিশুখাদ্য ও অন্যসামগ্রী বিতরণ করছে। প্রধানমন্ত্রীর সদয় নির্দেশনার আলোকে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর জনপ্রতিনিধি এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তৃণমূলপর্যায়ে এসব সামগ্রী বিতরণ করছেন। কিন্তু বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর আসছে কোথাও কোথাও এই ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম ও দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছেন জনপ্রতিনিধিরা।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় বলছে, এই অনিয়ম-দুর্নীতিতে জড়িত জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাময়িক বরখাস্ত, তাদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলাসহ কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকদের অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য-প্রমাণসহ প্রতিবেদন তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় সরকার বিভাগে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদেরও এই চিঠির অনুলিপি পাঠানো হয়েছে।

 

"