গ্রামের নাম ‘করোনা’ হওয়ায়...

প্রকাশ : ০৬ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

উইলিয়াম শেক্সপিয়ার বলেছিলেন, নামে কী বা আসে-যায়! কিন্তু করোনাক্রান্তিতে যে অনেক কিছুই আসে-যায়! এই যেমন ইউরোপের দেশ অস্ট্রিয়ায় অবস্থিত একটি গ্রাম, যার নাম করোনা। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। যে ভাইরাসের হানায় পৃথিবী কার্যত থমকে গেছে, সেই ভাইরাসের নামেই এই গ্রামের নাম, ‘সেন্ট করোনা’। এতদিন দিব্যি ছিল এই গ্রাম। কিন্তু এবার হয়েছে সমস্যা। নিজেদের গ্রামের নাম বদলে ফেলতে চাইছেন খোদ গ্রামবাসী।

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা থেকে ১০০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত সেন্ট করোনা গ্রামের উপার্জনের মূল উৎসই হলো পর্যটন। এর অবস্থান আল্পস পর্বতমালার পাদদেশে হওয়ায় দেশ-বিদেশ থেকে সারা বছরই পর্যটকেরা এখানে ঘুরতে আসেন। বরফে ঢাকা গ্রামটিতে মাত্র ৪০০ পরিবারের বাস। এখানকার পর্যটন শিল্পের মাসকট একটি পিঁপড়ে। তার নামও করোনা। এমন একটি শান্তিপ্রিয় এলাকার বাসিন্দারাও এখন করোনা আতঙ্কে গৃহবন্দি।

প্রথম প্রথম যখন করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছিল, সে সময় নামের সাদৃশ্য নিয়ে ঠাট্টা-মশকরাই করতেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু পরে এর ভয়াবহতা বুঝতে পারেন। এখন বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ যেভাবে তা-ব চালাতে শুরু করেছে, তাতে পর্যটন শিল্প নিয়েও উদ্বিগ্ন মেয়র মাইকেল গ্রুবের। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে গ্রুবের বলেছেন, ‘পর্যটকদের স্বাগত জানানোর জন্য আমাদের এবার হয়তো গ্রাম ও ম্যাসকটের নাম বদলে ফেলতে হবে।’

কেন? করোনাভাইরাসের অভিশাপের কথা মাথায় রেখেই এমন সিদ্ধান্ত গ্রুবেরের। গত রাত পর্যন্ত অস্ট্রিয়ায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ছাড়িয়েছে। প্রাণ হারিয়েছেন ২০৪ জন। করোনা মোকাবিলায় দেশটিতে এরই মধ্যে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। খাদ্যের জোগান, ওষুধপত্রের ব্যবস্থা সবকিছু সামলাচ্ছেন সেনারা।

মানবসভ্যতার ইতিহাসে করোনা নামটা আতঙ্কই হয়ে থাকবে। মানুষ একে মনে রাখবে এক মহামারির সমার্থক হিসেবে। তাই নামের সঙ্গে হাজার ঐতিহ্য মিশে থাকলেও এই নামের সঙ্গে নিজেদের আর জড়াতে চায়না ‘সেন্ট করোনা’ গ্রামের মানুষ। চায় নতুন করে সবকিছু শুরু করতে। হয়তো নতুন নামকে আঁকড়ে ধরেই গ্রামটি ফিরে পাবে তার হারানো জৌলুশ।

 

"