শেখ হাসিনা দেশকে মর্যাদার আসনে প্রতিষ্ঠিত করেছেন

লাকসামে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম

প্রকাশ : ১০ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

মনোহরগঞ্জ (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ আজ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশকে নিয়ে চিন্তাশীল বিশে^র ১০ রাষ্ট্রনায়কের মধ্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন। তিনি দেশকে আজ বিশে^র দরবারে মর্যাদার আসনে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। গতকাল শনিবার বিকালে লাকসাম উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম ‘যার জমি আছে, ঘর নাই’ প্রকল্পের আওতায় উপকারভোগীদের ঘর, প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ঢেউটিন, রবি প্রণোদনার আওতায় সার ও বীজ, কৃষি যন্ত্রপাতি, দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন, শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের ল্যাপটপ, প্রজেক্টর, বিভিন্ন ভাতা, বিভিন্ন ঋণ, এলজিএসপি-৩ প্রকল্পের আওতায় ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বাইসাইকেল এবং নিয়মিত এবং নিবন্ধিত জেলেদের মাঝে ছাগল বিতরণ ও পরিচ্ছন্নকর্মীদের মাঝে সমবায় সনদ বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মো. তাজুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ছেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ২০২১ ও ২০৪১ রূপকল্প বাস্তবায়নে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

এ সময় তিনি আরো বলেন, সরকার দেশের দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে স্বাবলম্বী করার জন্য বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। আজকে এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমরাও দরিদ্রদের মাঝে বিভিন্ন ভাতা, ঋণ বিতরণ করে তাদের স্বাবলম্বী হওয়ার সুযোগ করে দিচ্ছি। তিনি আরো বলেন, ২০২১ সালের পর আমাদের দেশের বেকারত্ব কমে যাবে। দেশেই অনেক কর্মক্ষেত্র সৃষ্টি হবে। আমাদের সন্তানদের আর মালয়েশিয়া-সিঙ্গাপুর যেতে হবে না। আর ২০৪১ সালে বাংলাদেশ হবে বিশে^র একটি উন্নত রাষ্ট্র। আজকে যে শিশুটি জন্ম নিচ্ছে সে উন্নত রাষ্ট্রের নাগরিক হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন লাকসাম উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মহব্বত আলী। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ কে এম সাইফুল আলম। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উজালা রানী চাকমা ও গোবিন্দপুর ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দীন শামীমের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর, কুমিল্লা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী সোহরাব আলী, মনোহরগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) পাঠান মো. সাইদুজ্জামান, মনোহরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন, লাকসাম উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পড়শী সাহা, লাকসাম পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি তাবারক উল্যাহ কায়েস, লাকসাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম হিরা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা দেবেশ চন্দ্র দাস, চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, হারুনুর রশিদ, ওমর ফারুক, সাহিদুল ইসলাম শাহিন, আবদুর রশিদ সওদাগর, আলী আহম্মদ, আবদুল আউয়াল আবুল, উপজেলা যুবলীগ নেতা মনিরুল ইসলাম রতন, দলিলুর রহমান মানিক, লাকসাম পৌরসভা কাউন্সিলর আবদুল আলিম দিদার, খলিলুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সিহাব খান, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলামসহ উপজেলা বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতারা।

অন্যদিকে গতকাল শনিবার সকালে মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এমপি। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন বাবলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য মাস্টার আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক দেওয়ান জসীম উদ্দিন, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি ও মনোহরগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. আমিরুল ইসলাম, মনোহরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহসভাপতি মো. আলী আক্কাস, মুকুল, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কামাল হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন মিলন, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরে আলম ছিদ্দিকী, ছাত্রলীগ নেতা শিমুল খান, নুর খান মিঠু, আবদুল্লাহ আল মামুন, রাসেল চৌধুরী, ইফরাত আহমেদ ইফু, আমজাদ হোসেন বিপ্লব, মাহাবুব আলম, রফিকুল ইসলাম, আরেফিন রুবেল, আবু নওশাদ, মাজহারুল ইসলামসহ উপজেলা ও ১১টি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতারা।

এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। একই দিন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এমপি লাকসাম পৌরসভায় কর্মরত পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের নবগঠিত সমবায় সমিতি হরিজন কল্যাণ সমবায় সমিতি লিমিটেডের সদস্যদের মাঝে সমবায় নিবন্ধন সনদ প্রদান করেন। পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের এই সমবায় গঠন, পরিচালনা এবং দক্ষতা উন্নয়নে সার্বিক সহায়তা করছেন লাকসাম পৌরসভা ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা প্র্যাকটিক্যাল অ্যাকশন। লাকসাম পৌরসভায় কর্মরত প্র্যাকটিক্যাল অ্যাকশন প্রতিনিধি ইমানুর রহমান জানান, সমাজের সুবিধাবঞ্চিত হরিজন সম্প্রদায়ের লোকজনের আর্থিক ও সামাজিক উন্নয়নে প্র্যাকটিক্যাল অ্যাকশন বদ্ধপরিকর। আমরা (আপ স্কেলিং ফিক্যাল স্লাজ ম্যানেজমেন্ট) প্রকল্পের মাধ্যমে পেশাগত স্বাস্থ্য নিরাপত্তা, সমবায় গঠন ও পরিচালনা উন্নত পদ্ধতিতে বর্জ্য অপসারণ ইত্যাদি বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান এবং স্বাস্থ্য নিরাপত্তাসামগ্রী প্রদান করে থাকি।

"