প্রথা ভেঙে যৌথভাবে বুকার পেলেন ২ নারী

প্রকাশ : ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রথা ভেঙে প্রথমবারের মতো যৌথভাবে সম্মানজনক সাহিত্য পুরস্কার বুকার জিতেছেন দুই নারী। গত সোমবার তিন সদস্যের ব্রুকার প্রাইজ কমিটি ৩০ বছরের পুরোনো বিধি ভেঙে কানাডীয় ঔপন্যাসিক মার্গারেট অ্যাটউড (৭৯) ও ব্রিটিশ লেখক বার্নারডাইন এভারিস্টোর (৬০) নাম ঘোষণা করে। টেস্টামেন্টস সিরিজের ‘দ্য হ্যান্ডমেইডস টেল’ উপন্যাসের জন্য অ্যাটউডকে এবং ‘গার্ল, ওম্যান, আদার’ বইটির জন্য বার্নারডাইনকে পুরস্কৃত করা হয়। সম্মানী হিসেবে তারা প্রায় ৬৩ হাজার মার্কিন ডলার ভাগাভাগি করবেন। বুকার কর্তৃপক্ষ জানায়, অনেক চেষ্টা করেও একজনকে বেছে নিতে পারেননি বিচারকরা।

১৯৬৯ সালে ম্যান বুকার পুরস্কার দেওয়া শুরু হয়। বুকারের ইতিহাসে এটি মাত্র তৃতীয়বার যৌথভাবে পুরস্কার জেতার ঘটনা। ১৯৯৩ সালে নিয়ম করা হয়েছিল, এই পুরস্কার আর কখনোই ভাগাভাগি করে দেওয়া হবে না। তবে সেটা রক্ষা করতে পারেননি বিচারকরা।

বুকার প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সাহিত্যবিষয়ক পরিচালক গ্যাবি উড বলেন, বুকারের বিচারকরা টানা পাঁচ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা জনপ্রিয় বইগুলো নিয়ে আলাপ-আলোচনা করে বুঝতে পারেন, এর মধ্য থেকে একজন বিজয়ী বের করা অসম্ভব।

বুকার পুরস্কারের ওয়েবসাইটের তথ্যমতে, এর আগে মাত্র দুইবার বুকার পুরস্কার ভাগাভাগির ঘটনা ঘটেছে। ১৯৭৪ সালে নাদিন গোরডাইমার ও স্ট্যানলি মিডলটন এবং ১৯৯২ সালে মাইকেল ওন্দাজে ও ব্যারি আন্সওর্থ যৌথভাবে এ পুরস্কার জেতেন।

অন্যদিকে এর আগে সংক্ষিপ্ত তালিকায় কৃষ্ণাঙ্গ লেখকের উপস্থিতি থাকলেও কখনো মূল পুরস্কার পাননি কেউ। সেদিক দিয়ে রেকর্ড গড়েছেন বার্নারডাইন। তিনি বলেন, এমন অনেক পুরস্কারই আছে যেগুলো নির্দিষ্ট কোনো গোষ্ঠীর মানুষ পায় না এবং এটা সত্যি যে কৃষ্ণাঙ্গরা সাহিত্যে খুব বেশি পুরস্কার পায় না। এটা কেউ খেয়াল না করলেও ব্যাপারটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এই লেখিকা বলেন, এর আগে কখনো কৃষ্ণাঙ্গ নারী এই পুরস্কার পায়নি। মাত্র চারজন সংক্ষিপ্ত তালিকায় ঠাঁই পেয়েছিলেন। কিন্তু কখনো পুরস্কার হাতে উঠেনি। আমি আশা করি পরবর্তী সময়ে আরো কৃষ্ণাঙ্গ নারী এই পুরস্কার পাবেন।

অন্যদিকে রেকর্ড করেছেন অ্যাটউডও। কানাডিয়ান এই লেখক এর আগে ২০০০ সালে তার ব্লাইন্ড অ্যাসোসিয়ান বইয়ের জন্যও বুকার জিতেছিলেন। দুটি বুকার পাওয়ার তালিকায় তিনি চতুর্থ। এ ছাড়া সবচেয়ে বয়স্ক বুকারজয়ীর রেকর্ডও গড়েছেন ৭৯ বছর বয়সি মার্গারেট অটউড।

চলতি বছর বুকার পুরস্কারের জন্য সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিল ছয়জনের নাম। বুকার পুরস্কারের সাহিত্য পরিচালক বিচারকদের বারবার অনুরোধ করেছিলেন যাতে যেকোনো একজনকে দেওয়া হয় ইংরেজি সাহিত্যের মর্যাদাপূর্ণ এ পুরস্কারটি। তবে বিচারকরা সে নিয়ম রক্ষা করতে পারেননি।

"