দিনাজপুরে স্পিকার

এম আবদুর রহিম ছিলেন খাঁটি জনদরদি

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

দিনাজপুর প্রতিনিধি

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের উজ্জ্বল নক্ষত্র এম আবদুর রহিম। তিনি তার আদর্শ, দেশপ্রেম ও সৎকর্মের মধ্যে দিয়ে মানুষের হৃদয়ে শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় অধিষ্ঠিত হয়েছেন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে তার অবদানের কথা দেশের মানুষ শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে, কেননা তিনি ছিলেন খাঁটি জনদরদি। এ সময় স্পিকার নতুন প্রজন্মকে এম আবদুর রহিমের আদর্শ অনুসরণের আহ্বান জানান।

গতকাল শুক্রবার দিনাজপুরে ‘গোর এ শহীদ ময়দানে’ এম আবদুর রহিম সমাজ কল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা

কেন্দ্র আয়োজিত জননেতা এম আবদুর রহিমের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন। স্পিকার বলেন, যুগে যুগে পৃথিবীতে এমন কিছ ুমানুষের আবির্ভাব ঘটে যারা নিজের চেয়ে দেশ ও জাতির কল্যাণের কথা অধিক গুরুত্বের সঙ্গে চিন্তা করেন। মরহুম এম আবদুর রহিম ছিলেন তেমনই একজন। তিনি দেশের জন্য ও এ অঞ্চলের গণমানুষের অধিকার আদায়ে আজীবন সোচ্চার ছিলেন।

তিনি বলেন, এম আবদুর রহিম ছিলেন শিক্ষানুরাগী আদর্শবান ব্যক্তিত্ব। সমাজ সেবায় তিনি রেখেছেন উজ্জ্বলতার স্বাক্ষর। তিনি ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহচর, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সংবিধান প্রণেতা—-এ আদর্শবান নেতা নতুন প্রজন্মের কাছে অনুকরণীয়।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এগিয়ে যাবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে গেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ অনন্য উচ্চতায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, উন্নয়নের সব সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ়-দারিদ্র্যের হার ৪০ শতাংশ থেকে ২১ শতাংশে কমে এসেছে। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হবে বাংলাদেশ।

অনুষ্ঠানে এম আবদুর রহিম সমাজকল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্রের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজিজল ইসলাম জুগলুর সভাপতিত্বে মরহুম এম আবদুর রহিমের জেষ্ঠ্য পুত্র বিচারপতি এনায়েতুর রহিম, বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক নঈম নিজাম, একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে এম আবদুর রহিমের কনিষ্ঠ পুত্র বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম, পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েম, এম আবদুর রহিম সমাজকল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্রের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজিজল ইসলাম জুগলু, কার্যকরী সভাপতি সফিকুল হক ছুটু, সাধারণ সম্পাদক চিত্ত ঘোষ উপস্থিত ছিলেন।

পরে এম আবদুর রহিমের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন স্পিকার। এর আগে দুপুরে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী দিনাজপুরে পৌঁছে জননেতা এম আবদুর রহিমের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং এম আবদুর রহিমের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেন।

 

"