শার্শায় দলবদ্ধ ধর্ষণ রিমান্ডে ৩, সময় নিল তদন্ত কমিটি

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

যশোর প্রতিনিধি

যশোরের শার্শা উপজেলায় মাদক মামলার এক আসামির স্ত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার তিন অভিযুক্তকে শুনানি শেষে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। গতকাল রোববার ওই আসামিদের বিরুদ্ধে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। আসামিরা হলেনÑ শার্শা উপজেলার চটকাপোতা গ্রামের কামরুজ্জামান ওরফে কামরুল, লক্ষ্মণপুর গ্রামের আব্দুল লতিফ ও আব্দুল কাদের। অন্যদিকে জেলা পুলিশ গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্ট রোববার দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কমিটির প্রধান আরো সাত কর্মদিবস সময় চেয়ে রোববার আবেদন করেন। পুলিশ সুপার ওই সময় বৃদ্ধি করেছেন।

তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) পরিদর্শক শেখ মোনায়েম হোসেন বলেন, আসামিদের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আসামিদের ডিএনএ টেস্টের জন্য আলামত সিআইডিতে পাঠানো হবে। অজ্ঞাত আসামি শনাক্তে তদন্ত চলছে।

ভিকটিম, মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে শার্শা উপজেলার লক্ষ্মণপুর গ্রামের মাদক মামলার এক আসামির স্ত্রীর বাড়িতে যান এসআই খায়রুল, পুলিশের সোর্স কামরুল, লতিফসহ বেশ কয়েকজন। তার স্বামীকে ছাড়ানোর ব্যবস্থা করবে বলে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে। এসআই খায়রুল বলে, টাকা দিলে মামলা হালকা করে ৫৪ ধারায় দেবে। ওই গৃহবধূ টাকা দিতে পারব না জানালে, এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যান তারা। একপর্যায়ে ঘরের ভেতরে ঢুকে পুলিশের সোর্স কামরুল ও এসআই খায়রুল ধর্ষণ করে গৃহবধূকে। ৩ সেপ্টেম্বর ভিকটিম শার্শা থানায় চটকাপোতা গ্রামের কামরুজ্জামান ওরফে কামরুল, লক্ষ্মণপুর গ্রামের আব্দুল লতিফ ও আব্দুল কাদেরের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত একজনের নামে মামলা করেন। মামলাটি ৫ সেপ্টেম্বর পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের নির্দেশে তদন্তের দায়িত্ব পায় পিবিআই যশোর।

 

"