সংগীত পরিচালক পারভেজ রব নিহতের জের

মামলা নিয়ে তর্কে দুজনকে বাসচাপা, নিহত ১

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীতে ভিক্টর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় খ্যাতিমান সংগীত পরিচালক পারভেজ রব নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার বিষয়ে পরিবহনটির সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ করছিলেন তার ছেলে ইয়ামিন আলভী (১৯) ও তার বন্ধু মেহেদী হাসান ছোটন (২০)। কিন্তু বাগবিত-ার জেরে এই দুজনের ওপরই বাস চালিয়ে দিয়েছেন ভিক্টর পরিবহনের আরেক চালক। এতে মৃত্যু হয়েছে ছোটনের, মৃত্যুশয্যায় কাতরাচ্ছেন আলভী। গত শনিবার রাতে উত্তরার কামারপাড়া এলাকায় আলভীদের বাসার কাছে ছোটন-হত্যাকা- ঘটে বলে জানান তার স্বজনরা। পরিবারের দাবি, সড়ক দুর্ঘটনায় পারভেজ রব নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলা-সংক্রান্ত বিষয়ে আলাপের জন্য ভিক্টর পরিবহনের

কর্মকর্তারা আলভীদের বাসার কাছে আসেন। সেখানে আলোচনার একপর্যায়ে বাগবিত-া হলে পারভেজ রবের পরিবারের লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে ভিক্টর পরিবহনের এক চালককে মারধর করেন। এ সময় ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে থাকা ভিক্টর পরিবহনের একটি বাস তাদের ওপর চালিয়ে দেওয়া হয়। এতে আলভী ও তার বন্ধু ছোটন গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছোটন মারা যান। আর আলভীর অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে গতকাল রোববার সকালে উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি তপন চন্দ্র সাহা জানান, গত ৫ সেপ্টেম্বর উত্তরার তুরাগে ভিক্টর পরিবহনের ধাক্কায় নিহত সংগীত পরিচালক পারভেজ রবের ছেলে আলভী ও তার বন্ধু ছোটনসহ বেশ কয়েকজন উত্তরা কামারপাড়ায় তাদের বাসার সামনে ভিক্টর পরিবহনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করছিলেন মামলা-সংক্রান্ত বিষয়ে। এ সময় তারা উত্তেজিত হয়ে সেখানে থাকা ভিক্টর পরিবহনের এক চালককে মারধর করতে থাকেন। একপর্যায়ে ওই চালক বাস টান দিলে গাড়ির নিচে চাপা পড়েন ছোটন ও আলভী। পরে দুজনকেই দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতাল নেওয়া হয়। সেখানে শনিবার রাত ১১টার দিকে ছোটন মারা যান। আলভীকে ঢামেকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ওসি আরো জানান, ঘটনার পরপরই ভিক্টর পরিবহনের ওই বাসটিকে জব্দ এবং সেই চালককে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বাসচালক দাবি করেন, হঠাৎ তাকে মারধর করায় তিনি আত্মরক্ষার্থে গাড়ি টান দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে বিস্তারিত তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

পারভেজ রবের বন্ধু আলী আসরাফ আখন জানান, পারভেজ রবের মৃত্যুর ঘটনায় ভিক্টর পরিবহনের কয়েকজন কর্মকর্তা তাদের সঙ্গে সমঝোতা করতে কামারপাড়ায় আসেন। একপর্যায়ে পরিবহনের লোকজন তাদের ওপর হামলা চালিয়ে মারপিট শুরু করেন। তখন ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে থাকা ভিক্টর পরিবহনের একটি বাস তাদের ওপর চালিয়ে দেওয়া হয়। এতে পারভেজের ছেলে আহত হন এবং তার সঙ্গে থাকা বন্ধু মারা যান। তিনি আরো জানান, আলভীর অবস্থা খুবই গুরুতর। তার মেরুদ-ের হাড় ভেঙে গেছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। গত ৫ সেপ্টেম্বর ভিক্টর পরিবহনেরই আরেক বাসের চাপায় সংগীত পরিচালক পারভেজ রব (৫৬) নিহত হন। তিনি কণ্ঠশিল্পী আপেল মাহমুদের ছোট ভাই।

 

"