অযোধ্যা মামলা

মধ্যস্থতাকারীর রিপোর্ট পেলেই শুনানি শুরু

প্রকাশ : ১২ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

পার্থ মুখোপাধ্যায়, কলকাতা থেকে

অযোধ্যার মামলায় আগামী ১৮ জুলাইয়ের মধ্যে মধ্যস্থতাকারীদের থেকে রিপোর্ট চেয়েছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। গতকাল বৃহস্পতিবার শীর্ষ আদালতের পাঁচ সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চের পক্ষ থেকে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানিয়েছেন, মধ্যস্থতাকারীদের সেই রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করেই হবে আগামী দিনের শুনানি। সেই অনুযায়ী আগামী ২৫ জুলাই ফের শুনানি হবে শীর্ষ আদালতে। এর আগে অযোধ্যা সমস্যার সমাধানের জন্যে একটি মধ্যস্থতা প্যানেল নিয়োগ করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। যাদের সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছিলেন অযোধ্যা-সংক্রান্ত গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখে জট কাটানোর চেষ্টা করার জন্যে। এবার সেই মধ্যস্থতাকারীদেরই সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছেন অযোধ্যার জমি জট কাটানোর বিস্তারিত রিপোর্ট আগামী সপ্তাহের মধ্যে আদালতের কাছে জমা দিতে।

অযোধ্যা মামলার বিষয়টি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এফ এম কালিফুল্লার নেতৃত্বে তৈরি হয়েছিল মধ্যস্থতাকারীদের দল। ২০১০ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম কোর্টে উঠে। এলাহবাদ হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শুরু হয় এই মামলা। শীর্ষ আদালতে সম্প্রতি গোপাল সিং বিশারদ নামের এক মামলাকারী বলেছেন, অযোধ্যা মামলায় অহেতুক দেরি করা হচ্ছে। সেই আবেদনের ভিত্তিতে বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেছেন, এই মামলা আর ফেলে রাখা যাবে না। আগামী ১৫ আগস্টের মধ্যে এই মামলার নিষ্পত্তি করতে হবে। বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেছেন, তারা এই মধ্যস্থতাকারী কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলেছেন, আগামী সপ্তাহের মধ্যে।

২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্টের এক রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল সব পক্ষ। এলাহাবাদ হাইকোর্ট রায়ে, অযোধ্যার রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদের ২ দশমিক ৭৭ একর বিতর্কিত জমিকে রাম লালা, সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড ও নির্মোহী আখাড়ার সমান তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছিল। এলাহাবাদ হাইকোর্টের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে একাধিক মামলা হয় সুপ্রিম কোর্টে।

 

"