চট্টগ্রামে দলবদ্ধ ধর্ষণ

প্রধান আসামির গুলিবিদ্ধ লাশ

প্রকাশ : ০৮ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

চট্টগ্রাম ব্যুরো

গত কয়েক দিন আগে এক কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনার প্রধান আসামির গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার একটি পাহাড় থেকে এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ লাশ পুলিশ উদ্ধার করেছে।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দুলাল মাহমুদ জানান, নিহত আবদুন নুর ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি। তার বিরুদ্ধে আনোয়ারা থানায় ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের একাধিক মামলা রয়েছে। তার একটি বাহিনী রয়েছে ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে অন্তর্কোন্দলের কারণে সে নিহত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গতকাল রোববার সকালে উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নে চায়না ইকোনমিক জোন সংলগ্ন হাজীগাঁও পাহাড় থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত আবদুন নুরের (২৫) বাড়িও আনোয়ারা উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নে।

এর আগে গ্রেফতারকৃত মামলার দুই আসামি কিশোরীকে বহনকারী সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক মামুন (২০) এবং যাত্রী হেলাল উদ্দিনকে (৩০) গত শুক্রবার রাতে গ্রেফতার করা হয়। তারা আদালতে দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। তারা জানান, একা মেয়ে পেলেই ধর্ষণ করতেন।

চট্টগ্রাম মহানগরীর নিকট কর্ণফুলী নদীর বিপরীতে আনোয়ারা উপজেলায় কোরিয়ান ইপিজেডে কর্মরত এক কিশোরী শ্রমিককে দলবদ্ধ ধর্ষণের পর রাস্তায় পাশে ছুড়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। বর্তমানে কিশোরী চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জ্ঞান ফিরেছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, গত বুধবার রাতে আনুমানিক ১৫ বছরের ওই কিশোরীকে হাসপাতালের ৩৩নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পর দিন বৃহস্পতিবার সকালে তার জ্ঞান ফিরেছে। তার চিকিৎসা চলছে।

আনোয়ারা থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কোরিয়ান ইপিজেডে কর্ণফুলী শু ফ্যাক্টরিতে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে ওই কিশোরীকে তুলে নিয়ে যায় একদল দুর্বৃত্ত। কিশোরীর দুলাভাই জানান, রাতে শ্যালিকার ব্যবহৃত মোবাইল থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান তিনি। পরে পুলিশের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

 

 

"