ভুতুড়ে বাড়িতে অদ্ভুতুড়ে কাণ্ড, মালিক লাপাত্তা!

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৯, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

ইংল্যান্ডের নর্থ ইস্ট জেলা অ্যাসেক্সের একটি গ্রাম সেন্ট অসিথ। গ্রামে একটি প্রাচীন ভবন রয়েছে। নাম ‘দ্য কেজ’। মধ্যযুগে কারাগার হিসেবে ব্যবহৃত হতো এটি। শোনা যায়, ১৫৮২ সালে এই কারাগারে ১৩ ‘ডাইনি’কে রাখা হয়েছিল বিচারের জন্য।

১৩ ‘ডাইনি’র ভেতর নাকি তিনজন দোষী সাব্যস্ত হন। তাদের ফাঁসি দেওয়া হয়। বাড়িটির বর্তমান মালিকের ধারণা, ফাঁসির দ- পাওয়া ওই তিন ডাইনির আত্মা এখনো বাড়িটিতে ঘুরে বেড়ায়। এ ছাড়া অশুভ আত্মাদের বিচরণ রয়েছে ওই বাড়িতে।

মালিকের নাম ভেনেসা মিচেল। ২০০৪ সাল থেকে বাড়িটির মালিকানা পান তিনি। বসবাসও শুরু করেন সেখানে। কিন্তু চার বছর পর বাড়িটি থেকে পালিয়ে যান। এরপর থেকেই চেষ্টা করছেন বাড়িটি বিক্রি করার।

মিচেল বলেন, বাড়িটিতে থাকার সময় অনেক ভুতুড়ে ঘটনা ঘটেছে। ভূতেরা বাড়িটির ভেতর উৎপাত করত। তার দাবি, অন্তঃসত্ত্বা থাকা অবস্থায় একবার একটি ভূত তাকে ধাক্কা দেয়। এ ছাড়া তিনি ভবনের ভেতর রহস্যময় রক্ত দেখতে পেতেন। অশুভ আত্মারা ছাগলের রূপ ধরে ভেতরে ঘুরে বেড়াত বলেও দাবি করেন তিনি। বাড়িটি বিক্রির দায়িত্ব নিয়েছে এস্টেট এজেন্ট হোম ডমাস ৩৬০। তারা আশা করছেন, অস্বাভাবিক এই বাড়িটিকে কেউ ভালোবাসবে এবং এটি কিনতে এগিয়ে আসবেন।

প্রতিষ্ঠানটির মুখপাত্র ফ্লোরেন্ট ল্যাম্বার্ট বলেন, ‘ভেনেসা ভূতের কারণে ওই বাড়িতে বসবাস করতে পারেননি। তিনি কয়েকবার এটি বিক্রির চেষ্টা করেছেন। তবে সফল হননি তাতে।’

ল্যাম্বার্ট আরো বলেন, ‘আমার মনে হয় বাড়িটিতে স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য কেউ এটি কিনবে না। তবে ইতিহাসসমৃদ্ধ কিংবা ভূতের বাড়ি হিসেবে খ্যাতি রয়েছে এমন বাড়ির বড় মার্কেট রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও ইংল্যান্ডে। তা ছাড়া আমরা এমন ক্রেতাকেও খুঁজছি যারা বাড়িটি কিনতে চাইবে কেবল ছুটির দিন কাটানোর জন্য।’ সূত্র : ডেইলি মেইল।

 

"