সংসদে সমাজকল্যাণমন্ত্রী

বেকারদের ভাতা প্রদানে কোনো পরিকল্পনা নেই

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ০০:০০

সংসদ প্রতিবেদক

সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেছেন, এই মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠীর ভাতা প্রদানের কোনো পরিকল্পনা নেই বর্তমান সরকারের। মন্ত্রী অন্য আরেকটি প্রশ্নের জবাবে বলেন, প্রত্যেকটি উপজেলায় একটি করে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার নামে সরকারি এতিমখানা স্থাপন করা হবে, যা মন্ত্রণালয়ের এখতিয়ারভুক্ত।

সংসদের বাজেট অধিবেশনে গতকাল মঙ্গলবার সরকার দলীয় এমপি শফিকুল ইসলাম শিমুল ও মহিলা এমপি বেগম হাবিবা রহমান খানের আলাদা প্রশ্নের জবাবে সংসদে সমাজকল্যাণমন্ত্রী এ তথ্য জানান। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিকালে এ অধিবেশন শুরু হয়। সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন, বর্তমানে দেশের প্রতিটি জেলা সদরে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সমাজসেবা অধিদফতর কর্তৃক ১টি করে কোনো কোনো উপজেলায় একাধিক সর্বমোট ৮৫টি সরকারি শিশু পরিবার (এতিমখানা) পরিচালিত হচ্ছে। তিনি বলেন, প্রত্যেকটি উপজেলায় একটি করে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার নামে সরকারি এতিমখানা স্থাপন করার বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের এখতিয়ারভুক্ত।

বেগম হাবিবা রহমান খানের আরেকটি প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ঢাকার মিরপুরে ১টি অটিজম রির্সোস সেন্টার আছে। এছাড়া এ ফাউন্ডেশনের আওতায় দেশের ৬৪ জেলায় এবং ৩৯টি উপজেলায় প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র চালু আছে। এখানে একটি করে প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রে একটি করে অটিজম কর্নার রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর অভিপ্রায় অনুযায়ী প্রতিটি উপজেলায় প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে। এগুলো চালু হলে সেখানে একটি করে অটিজম কর্নার চালু করা হবে।

সৈয়দা রুবিনা আক্তারের লিখিত প্রশ্নের জবাবে সমাজকল্যাণমন্ত্রী বলেন, পল্লী অঞ্চলে বসবাসরত হতদরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর দরিদ্রতা নিরসন ও আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যমে তাদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশের প্রতিটি উপজেলায় সমাজসেবা অধিদফতর কর্তৃক দারিদ্র্য নিরসন কার্যক্রমগুলো পরিচালিত হচ্ছে। সেগুলো হচ্ছে পল্লী সমাজসেবা (আরএসএস) কার্যক্রম, দগ্ধ ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পুনর্বাসন কার্যক্রম ও পল্লী মাতৃ কেন্দ্র (আরএমসি)।

 

 

"