বন্দুকযুদ্ধ

কক্সবাজারে ২ রোহিঙ্গা মাদক কারবারি নিহত

লালমনিরহাটে গুলিবিদ্ধ ১

প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ সীমান্তে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গা মাদক কারবারি নিহত হয়েছে। এছাড়া লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রফিকুল ইসলাম রফিক (৩২) নামে এক মাদকবিক্রেতা গুলিবিদ্ধ হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ

কক্সবাজার : কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গা মাদকবিক্রেতা নিহত হয়েছে। গতকাল সোমবার ভোরে সীমান্তের কেরুনতলী এলাকায় আবুল কাশেমের বাঁশবাগানে এ বন্দুকযুদ্ধ হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ দেশীয় তৈরি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। নিহত দুই রোহিঙ্গা হলো উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী এলাকার ১৩ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের শামসুল আলমের ছেলে সাইফুল ইসলাম ও ১৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নবী হোসেনের ছেলে ফারুক হোসেন। কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার আসাদ আহমেদ জানান, সোমবার ভোররাতে ইয়াবা আসার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি সদস্যরা উখিয়া-টেকনাফের সীমান্তের কেরুনতলী ব্রিজ এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে ইয়াবা কারবারিরা বিজিবির ওপর হামলা চালায়। বিজিবিও আত্মরক্ষর্থে গুলি চালালে এক পর্যায়ে পাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থাল পুলিশ তল্লাশি করে ২০ হাজার পিস ইয়াবা, বেশকিছু দেশীয় তৈরি ধারালো অস্ত্রসহ থাইংখালী ১৩নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে শামসুল আলমের ছেলে সাইফুল ইসলাম ও ১৯ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নবী হোসেনের ছেলে ফারুক হোসেনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় পাচারকারীর হামলায় গোলাম কিবরিয়া নামে এক বিজিবি জওয়ান আহত হন।

লালমনিরহাট : লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রফিকুল ইসলাম রফিক (৩২) নামে এক মাদকবিক্রেতা গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গত রোববার রাত ৯টার দিকে উপজেলার কাকিনা ইউনিয়নের উত্তর গোপাল রায় বিধুয়া মাল্লি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ রফিকুল ইসলাম রফিক উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের খামারভাতি গ্রামের হাবিবুর রহমান হাবুর ছেলে।

কালীগঞ্জ থানার এসআই বাদল কুমার মন্ডল জানান, গোপন খবরের ভিত্তিতে উপজেলার কাকিনা সিরাজুল মার্কেট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১০০ পিস ইয়াবা ও একটি মোটরসাইকেলসহ কুখ্যাত মাদক বিক্রেতা রফিকুল ইসলাম রফিককে আটক করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে, বড় চালান উদ্ধারে তাকে নিয়ে উত্তর গোপাল রায় বিধুয়া মাল্লি এলাকার অভিযান চালায় পুলিশ। বিষয়টা বুঝতে পেয়ে রফিকুলের সহযোগীরা পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় পুলিশ চার রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছুড়লে রফিকুলের দুই পায়ে লাগে। পরে তাকে গ্রেফতার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ সময় মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় কালীগঞ্জ থানার এএসআই সাইদুল ইসলাম ও কনেস্টবল মোশারফ হোসেন আহত হন। তারাও কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আরজু মো. সাজ্জাত হোসেন বলেন, মাদকবিক্রেতা রফিকুল ইসলাম রফিকের বিরুদ্ধে ছয়টি মাদক মামলা রয়েছে। যার মধ্যে চারটিতে গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে। এছাড়াও এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে আরো একটি মামলা করা হয়েছে।

 

"