এই সুন্দরীদের বিয়ে হয় না কেন?

প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

বিশ্বে এমন একটি শহর রয়েছে যেখানকার সুন্দরী নারীদের অধিকাংশই অবিবাহিত। ফুটবলের দেশ ব্রাজিলের পাহাড়ি অঞ্চলে খুব ছোট শহর নোভা ডো করডেরিওতে অধিকাংশ নারীরা বিয়ে করেননি। তাদের অধিকাংশের বয়স ২০ থেকে ৩৫ এর মধ্যে। এই সুন্দরীরা স্বাবলম্বী ও বাড়ি-গাড়ির মালিক। বেশ স্বাধীনচেতা ও অধিকার সচেতন। সে কারণে কোনো পুরুষ তাদের বিয়ে করতে সাহস পান না। খবর দ্য ডেইলি মেইল।

শত বছরের পুরোনো এই শহরে ৬০০ তরুণীর মধ্যে ৩০০ জন প্রেম করে বিয়ে করেছেন এবং শহরের নিয়ম ভঙ্গ করেছেন। বাকিদের ভাগ্যে বর মেলেনি এখনো। এই শহরের মেয়েরা বিয়ের জন্য পাত্র খুঁজছেন এমন খবর প্রকাশ্যে আসার পরই বিশ্বজুড়ে পুরুষরা আগ্রহ দেখাতে শুরু করেন। আর তখনই পুরো ব্যাপারটি প্রকাশ্যে আসে।

আসলে এই শহরে কিছু নিয়ম রয়েছে, যা মেনে চলতে হবে পুরুষদের। আর সেই নিয়মগুলো আবার অপছন্দ পুরুষদের। বিয়ের পর স্বামীকে সেখানেই থাকতে হবে এবং বাসন মাজা, বাথরুম পরিষ্কার করা এবং রান্নায় সাহায্য করতে হবে স্ত্রীকে। তবে এই শহরে যেসব নারী বাস করেন তারা পুরুষবিদ্বেষী নন। কিন্তু তারা মনে করেন নারী–-পুরুষ সমান। যেসব নারী এখনো বিয়ে করেননি তারাই এই নিয়ম তৈরি করেছেন।

এমনকি অর্থনৈতিক সিদ্ধান্ত নেন মহিলারাই। এই শহরের নারীরা স্বাধীনচেতা এবং নিজেদের টাকায় তৈরি করেছেন বাড়িও। তাই পুরুষদের কাছে এ ধরনের নিয়ম গ্রহণযোগ্যতা পায় না। সেজন্য নোভা ডো করডেরিও শহরের বিবাহযোগ্য মেয়েরা এখনো অবিবাহিত। কারণ এত সমর্থবান ও স্বাধীনচেতা নারীকে বিয়ে করতে সাহস পান না কোনো পুরুষ। তারপরও এ শহরকে ভালোবাসের এই নারীরা, তারা তাদের পছন্দের শহর ছেড়ে সচরাচর অন্যত্র যান না।

 

"