রংপুরে শিয়ালের কামড়ে আহত ১০ : এলাকায় আতঙ্ক

প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

রংপুর ব্যুরো

রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের মেনানগর গ্রামে শিয়ালের উপদ্রব বেড়েছে। গত দুই দিনে শিয়ালের কামড়ে ১০ জন আহত হয়েছেন। এই ঘটনার পর এলাকার লোকজন আতঙ্কে আছেন।

স্থানীয় লোকজনের ভাষ্য, উপজেলা সদর থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের মেনানগর গ্রামের পাশে প্রায় ১৫ একর জমিতে একটি কবরস্থান রয়েছে। কবরস্থান এলাকায় হঠাৎ করে শিয়ালের উপদ্রব বেড়ে গেছে। শিয়াল হাঁস-মুরগি খাচ্ছে শুধু নয়, শিয়ালের উৎপাতে কবরস্থানের পাশ দিয়ে লোকজন যাতায়াত করতেও পারছেন না। মানুষকে নাগালের মধ্যে পেলেই কামড়াচ্ছে শিয়াল।

গত রোববার সন্ধ্যায় ওই কবরস্থানের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় শিয়ালের কামড়ের শিকার হন কয়েকজন ব্যক্তি। তারা হলেন হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের মাস্টারপাড়া গ্রামের মোক্তার মুন্সী, ফকির মিয়া, আদাহিন্না গ্রামের শাহাজাদা মিয়া, বাচ্চানি বেগম ও ফজলু মিয়া পরে তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আগের দিন শনিবার সকালে মাঠে কাজ করতে গেলে ইউনিয়নের সরকারপাড়া গ্রামের পাংশি বানু ও বুলবুল আহম্মেদ, পাটোয়ারীপাড়া গ্রামের বদির উদ্দিন, মেনানগর গ্রামের ইকরামুল হক ও তৈয়ব আলী শিয়ালের আক্রমণের শিকার হন। তারা রংপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেন।

হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ বলেন, শিয়ালের অত্যাচারে লোকজন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। ক্ষুব্ধ হয়ে এলাকার মানুষ দুটি শিয়ালকে মেরে ফেলেছে। এ ঘটনার পর এলাকায় শিয়ালের উপদ্রব বেড়েছে। দিনে-রাতে শিয়াল হাঁস-মুরগি ধরে নিয়ে যাচ্ছে। মানুষকে কামড়াচ্ছে। শিয়ালের উৎপাতের বিষয়টি তারাগঞ্জ থানা-পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে বলে জানান হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ।

"