ট্রেনের ধাক্কায় সিরাজগঞ্জে ২ ও চট্টগ্রামে নিহত ১

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার কয়েলগাঁতীঢাল এলাকায় অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ের ওপর মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় গরুবাহী পিকাপভ্যান উল্টে চালকসহ তিনজন নিহত ও দুইজন আহত হয়েছেন। এছাড়া এ ঘটনায় ঘটনাস্থলে দুইটি গরুও মারা গেছে। গতকাল শনিবার দুপুর পৌনে ২টার দিকে কলকাতা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেসের ধাক্কায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন কামারখন্দ উপজেলার বড়কুড়া গ্রামের মৃত রহম আলীর ছেলে ভটভটি চালক সুর্য্য শেখ (৪০), পাকুরিয়া গ্রামের বিশা মন্ডলের ছেলে ও গরু ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম (৩৮) ও আবদুল হামিদের ছেলে নেহার আলী (৩৭)। অপরদিকে, চট্টগ্রামে ট্রেনের ধাক্কায় একজন নারী নিহত হন। প্রতিনিধিদের পাঠানো রিপোর্ট:

সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ওয়্যার হাউস ইন্সপেক্টর আবদুল হামিদ জানান, কামারখন্দ থেকে গরু নিয়ে উল্লাপাড়া হাটে যাওয়ার পথে পিকাপভ্যানটি কয়েলগাতীঢাল এলাকায় রেলক্রসিংয়ের ওপর গিয়ে বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় ভারত থেকে ঢাকাগামী মৈত্র এক্সপ্রেস ট্রেনটি দ্রুতবেগে ছুটে এসে পিকাপভ্যানটিকে সজোরে ধাক্কা দিয়ে চলে যায়। ধাক্কায় পিকাপভ্যানটি রেললাইনের পাশে ছিটকে পড়ে চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে একজন এবং কামারখন্দ হাসপাতালে নেওয়ার পর দুজন মারা যায়।

কামারখন্দ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার সমনুল হক জানান, হাসপাতালে আনার আগেই একজন এবং হাসপাতালে আনার পর দুজন মারা যান। অন্য দুজনকে জেলা সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

কামারখন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম জানান, লাশ তাদের পরিবারের লোকজন তাৎক্ষণিকভাবে নিয়ে গেছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতের প্রত্যেক পরিবারকে ২৫ হাজার করে অনুদান দেওয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামে ট্রেনের ধাক্কায় সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশার যাত্রী নিহত হয়েছেন। গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কদমতলী রেলক্রসিং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম আরিফা বেগম (৫৫)। তার আর কোনো পরিচয় পাওয়া যায়নি।

একই ঘটনায় আরো তিনজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন তাছলিমা (৩৫), মেঘলা (১৩) ও শ্রবণ (১২)। হতাহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন।

রেলওয়ে থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সিগন্যাল বার ফেলার পরও সিএনজি অটোরিকশাচালক রেলক্রসিং পার হতে গেলে রেলের ইঞ্জিনের ধাক্কা লাগলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত তিনজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত নায়েক হামিদুর রহমান বাংলা বলেন, আহত তিনজনকে সাড়ে ৯টার দিকে হাসপাতালে আনা হয়। তাদের মধ্যে মেঘলার অবস্থা আশঙ্কাজনক।’

 

"