ফিলিপাইনে মিলেছে মানুষের পূর্ব প্রজন্মের দাঁত ও হাড়

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মনুষ্যসদৃশ এক প্রজাতির প্রাণীর হাড় ও দাঁতের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। তারা জানান, ফিলিপাইনে বিলুপ্ত এক প্রজাতির প্রাণীর সন্ধান পেয়েছেন তারা, যাকে বলা হচ্ছে হোমো লুজোনেনসিস। পৃথিবীতে এদের বিচরণকাল ছিল ৫০ থেকে ৬৭ হাজার বছর আছে। মানুষের পূর্ব-প্রাণী হোমো সেপিয়ানের সঙ্গে এই লুজোনেনসিসদের দারুণ মিল রয়েছে। বিবিসি ও সিএনএনের এক প্রতিবেদন থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানা যায়।

গবেষকরা জানান, এই প্রজাতির মানুষের হাড়ের মধ্যে বর্তমান প্রজাতি ও একদম আদি প্রজাতির এক মিশ্রণ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, প্রাচীন যুগে আফ্রিকা ছেড়ে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় এসেছিল মানুষ; যা আগে সম্ভব বলে মনে হয়নি।

ফিলিপাইনের সবচেয়ে বড় দ্বীপ লুজনে ওই দেহাবশেষের সন্ধান পান গবেষকরা। ২০০৭ সাল থেকে গুহায় এসব উদ্ধার করেছেন। দাঁত, হাত, পায়ের হাড়সহ অন্তত ১৩টি দেহাবশেষ পাওয়া গেছে। এর আগেও সেখানে একাধিক প্রজাতির মানুষের অবস্থান সম্পর্কে ধারণা পাওয়া গিয়েছিল। একাধিক প্রজাতির মানুষের অস্তিত্ব একই জায়গায় হওয়ার কারণে বিষয়টি বেশ জটিল হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিজ্ঞানীরা।

এর আগে হোমো ফ্লোরেনসিয়েসিস নামের এক প্রজাতির সন্ধান পেয়েছিল মানুষ। তাদের ‘হবিট’ বা বামন বলে সম্বোধন করা হয়েছিল। ধারণা করা হয়, তারা ৫০ হাজার বছর আগে ইন্দোনেশিয়ায় ফ্লোরস দ্বীপে বসবাস করত হবিটরা। লন্ডনের ন্যাচারাল হিস্টোরি জাদুঘরের অধ্যাপক ক্রিস স্ট্রিংগার বলেন, ‘২০০৪ সালে হোমো ফ্লোরেসিয়েসিস আবিষ্কারের পর আমি বলেছিলাম যে, দেশটির অন্যান্য অঞ্চলেও এমন সন্ধান মিলবে। আর মাত্র ৩ হাজার কিলোমিটার ?দূরে লুজন দ্বীপেই সেই কথা সত্য প্রমাণিত হলো।’

জার্নাল ন্যাচারে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, কালাও গুহায় পাওয়া হোমো লুজোনেনসিস প্রজাতির বসবাস ৫০ থেকে ৬৭ হাজার বছর আগে। হোমো লুজোনেনসিসের সঙ্গে আধুনিক মানবজাতি হোমো সেপিয়েন্সের অনেক মিল রয়েছে। একই সঙ্গে ২০ থেকে ৪০ লাখ বছর আগের বানরসদৃশ মানুষের সঙ্গেও মিল রয়েছে এ প্রজাতির বুদ্ধিমান প্রাণীদের সঙ্গে।

 

"