ভালোবাসায় রাজ্য দখল

প্রকাশ : ১১ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

একটা দেশ দখল করার জন্য যুদ্ধ করতে হয়, একালে সবাই তা জানেন। কিন্তু শুধুই ভালোবাসা দিয়ে, বৈবাহিক সম্পর্কের মাধ্যমেই দখল করে নেওয়া সম্ভব কোনো দেশ? একালে কথাটা বিশ্বাস করা খুব কঠিন হলেও হালের একটি গবেষণা বলছে, সেই ঘটনাই ঘটেছিল সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি বছর আগে মিসরে। আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব ফিজিক্যাল অ্যানথ্রোপলজিস্টসের বার্ষিক বৈঠকে এ আবিষ্কারের কথা ঘোষণা করেছেন ব্রিটেনের বোর্নমাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জীব নৃতাত্ত্বিক ক্রিশ্চিনা স্ট্যানটিস। তিনি জানিয়েছেন, তারা এমন কিছু প্রমাণ পেয়েছেন, যার ভিত্তিতে বলা যায়, মধ্যপ্রাচ্যের তেল এল-দাবা থেকে ওই সময় মূলত সুন্দরী মহিলারাই ঢুকে পড়েছিলেন মিসরের উত্তর কেমেতে। ওই মহিলারা সবাই ছিলেন হিকসস জনগোষ্ঠীর। তারাই মিসরে ঢুকে পড়েছিলেন কোনো যুদ্ধ বা রক্তপাত ছাড়াই। হিকসস জনগোষ্ঠীর ওই সুন্দরী মহিলাদের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল মিসরের তখনকার রাজবংশের সদস্যদের। নীলনদের উপত্যকায় তেল এল-দাবা বলে জায়গাটিই ছিল হিকসস জনগোষ্ঠীর রাজধানী।

পরে নিজেদের জনগোষ্ঠীর সুন্দরী মহিলাদের বৈবাহিক সম্পর্কের কারণে নীলনদের উপত্যকায় তেল এল-দাবার খাসমুলুকটি ছেড়ে দিয়েছিলেন হিকসসরা। হিকসস জনগোষ্ঠীর প্রায় পুরোটাই চলে যায় মিসরের উত্তর কেমেতে। ঘটনাটা ঘটেছিল আজ থেকে ৩ হাজার ৫৪০ বছর কী ৩ হাজার ৬৫০ বছর আগে। মিসরের ফারওরা পরে উত্তর কেমেতে থেকে হঠিয়ে দেন হিকসসদের। তেল এল-দাবাও দখল করে নেন।

মূল গবেষক ক্রিশ্চিনা স্ট্যানটিস জানিয়েছেন, তেল এল-দাবায় মাটি খুঁড়ে হিকসস জনগোষ্ঠীর ৭১ জনের কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়েছিল। যাদের অর্ধেকই মারা গিয়েছিলেন হিকসসদের মিসর দখলের কয়েক শতাব্দী আগে। বাকি অর্ধেকদের মৃত্যু হয়েছিল সেই সময়ে যখন হিকসসরা মিসর দখল করে নিয়েছে। ওই কঙ্কালগুলোর দাঁতে পাওয়া স্ট্রনসিয়াম মৌলের সন্ধান পেয়েই গবেষকরা এসব জানতে পেরেছেন। দাঁত থেকে ওই স্ট্রনসিয়াম মৌলের কণা কঙ্কালগুলোর হাড়ে পৌঁছেছিল। দেখা গেছে, ওই সময়ে মিসরে হিকসস জনগোষ্ঠীর যে কটি কঙ্কালের হদিস মিলেছে, তার প্রায় সবগুলোই মহিলাদের। স্ট্যানটিসের কথায়, ‘এটাই ইঙ্গিত দেয়, ওই সময় মিসরের রাজবংশের সদস্যদের সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ হয়েছিলেন বলেই উদ্ধার হওয়া হিকসস জনগোষ্ঠীর মানুষের কঙ্কালের মধ্যে মহিলাদের সংখ্যা এত বেশি, পুরুষের সংখ্যা এতটাই নগণ্য।’

 

"