ফের রক্তাক্ত সড়ক

বাস-ট্রাকচাপায় ঝরল আরো ১১ প্রাণ

প্রকাশ : ২০ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

আবার রক্তাক্ত হলো সড়ক। ঢাকায় বাসের ধাক্কায় শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে সড়ক আন্দোলনের মধ্যেই গাইবান্ধার সাদুল্ল্যাপুরে কভার্ডভ্যানের ধাক্কায় বাসচালকের সহকারীসহ তিন যাত্রী, সিলেটে ট্রাকচাপায় সেনা কর্মকর্তার স্ত্রী ও ছেলে, নাটোরের সিংড়ায় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে যুবক, চুয়াডাঙ্গায় পিকআপের ধাক্কায় কিশোর, মাগুরায় বাসের ধাক্কায় নসিমনচালক, মানিকগঞ্জের শিবালয়ে গাড়িচাপায় পথচারী, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে অটোরিকশার ধাক্কায় স্কুলছাত্র ও যশোরের বাগআঁচড়ায় ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেলের চালক নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকালে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ

সাদুল্ল্যাপুর (গাইবান্ধা) : ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জাকির পরিবহন (ঢাকা মেট্রো-ব-১৩/০৫৪৭) নামের একটি যাত্রীবাহী বাস ঠাকুরগাঁওয়ের উদ্দেশে রওনা হয়। এ সময় বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা অপর একটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্রো-ট-১৮/২২৮৫) ওই বাসটিকে সাইড দিয়ে গিয়ে ধাক্কায় লাগে। এ সময় কাভার্ডভ্যানটি উল্টে যায়। ঘটনা স্থলে বাসের তিন যাত্রী নিহত হন। নিহতরা হলেন ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার প্রথম ডাঙ্গা গ্রামের আনছের আলীর স্ত্রী সামছুন্নাহার বেগম (৩৫), ধরলা সাথী গ্রামের মৃত বছির উদ্দিনের স্ত্রী ঝর্ণা বেগম (৩০) ও সিংহসিংলী গ্রামের জয়নাল মিয়ার ছেলে রেজাউল করিম (৩৫)। আহত ১০ জনকে পীরগঞ্জ ও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ধাপেরহাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুর রশিদ সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

সিলেট : বেড়াতে এসে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন সেনা কর্মকর্তার স্ত্রী ও ছেলে। নিহতরা হলেন সেনাবাহিনীর সার্জেন্ট সোজা আহমদের স্ত্রী ইলোরা পারভীন (৩৮) ও তার ছেলে সাজিদ মিয়া (৬)। আহত হয়েছেন আরো দুইজন। দুপুর ২টার দিকে সেনা কর্মকর্তার স্ত্রী ও ছেলে বিছানাকান্দি থেকে জাফলং যাচ্ছিলেন। তাদের বহনকারী অটোরিকশা সালুটিকর-গোয়াইনঘাট সড়কের সতিগ্রাম এলাকায় পৌঁছলে চাপা দেয় ট্রাক। এতে ঘটনাস্থলেই সেনা কর্মকর্তার স্ত্রী ও ছেলে নিহত হন। আহতরা হলেন সেনাবাহিনীর সার্জেন্ট সোজা আহমদের পরিবারের সঙ্গে আসা জনৈক আবদুর রশিদের ছেলে মাহিন ও সজিব। তাদের গোয়াইনঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকার বসুন্ধরা গেট এলাকায় সুপ্রভাত বাসচাপায় আবরার আহমেদ চৌধুরী নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। নিহত আবরার বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী। আবরার আহমেদ চৌধুরী সেনাবাহিনীর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) আরিফের বড় ছেলে।

আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহতের ঘটনায় আন্দোলন নামে তার সহপাঠীরা। তাদের সঙ্গে আন্দোলনে যোগ দেন নর্থ সাউথ, ইস্ট ওয়েস্ট, ইনডিপেনডেন্ট ও আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরাও।

নাটোর : সিংড়া উপজেলার শেরকোলে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মাসুদ রানা (২৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। মাসুদ রানা বগুড়া জেলার শিবগঞ্জের রফিকুল ইসলামের ছেলে। ঝলমলিয়া হাইওয়ে থানার ইনচার্জ মোজাম্মল হক জানান, মাসুদ রানা ট্রাকযোগে বগুড়া থেকে নাটোর যাচ্ছিলেন। পথে শেরকোলে তিনি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে নামেন। পরে চলন্ত ট্রাকে ওঠার সময় পা পিছলে পড়ে চাকার নিচে পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান মাসুদ।

চুয়াডাঙ্গা : সদর উপজেলার হাতিকাটা এলাকায় কৃষি বিভাগের মেহেরপুরের বারাদী হর্টিকালচার সেন্টারের পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় রাজু আহমেদ (১৭) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। রাজু আহমেদ হাতিকাটা গ্রামের ডাবলু হোসেনের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার সকালে পিকআপ ভ্যানটি দ্রুতগতিতে মেহেরপুর থেকে চুয়াডাঙ্গার দিকে আসছিল। পথে হাতিকাটা এলাকায় এসে গাড়িটি বাইসাইকেল আরোহী রাজুকে ধাক্কা দেয়। এতে গুরুতর আহত হয় রাজু। এ অবস্থায় স্থানীয়রা রাজুকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে দুপুরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়।

মাগুরা : মাগুরা-ফরিদপুর সড়কে বেলা ১১টার দিকে বাসের ধাক্কায় এক নসিমনচালক নিহত হয়েছেন। নিহত ইমদাদুল হকের (২২) বাড়ি সদর উপজেলার কসুন্দি গ্রামে।

সদর থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম জানান, ঢাকা থেকে যশোরমুখী চাকলাদার পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস বিপরীতমুখী নসিমনকে ধাক্কা দেয়। এ সময় নসিমনচালক রাস্তায় ছিটকে পড়েন। তাকো সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মানিকগঞ্জ : শিবালয়ের ফলসাটিয়া এলাকায় গাড়িচাপায় অজ্ঞাত পথচারীর মৃত্যু হয়েছে। বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইয়ামিন উদ-দৌলা জানান, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে আনুমানিক ৪৫ বছর বয়সের এক ব্যক্তিকে অজ্ঞাত একটি গাড়িচাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জামালপুর : দেওয়ানগঞ্জের বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নে অটোরিকশার ধাক্কায় নিহত মোটরসাইকেল আরোহী ওয়াজকুরুনী মামুন (১৫) ওই ইউনিয়নের পূর্ব সরদারপাড়া গ্রামের মো. আবদুস সামাদের ছেলে ও পৌর এলাকার আজিজা রোজ বাড কিন্ডারগার্টেনের দশম শ্রেণির ছাত্র।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে স্কুলটির প্রধান শিক্ষক নূরুন্নাহার বেগম জানান, দুপুরে মোটরসাইকেল চালিয়ে দেওয়ানগঞ্জ থেকে বাড়ি ফিরছিল মামুন। পথে পোল্লাকান্দি সেতু এলাকায় একটি অটোরিকশা তাকে ধাক্কা দিলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বেনাপোল (যশোর) : বাগআঁচড়ার নাভারণ-সাতক্ষীরা সড়কের বাগুড়ী এলাকায় ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেলের চালক লিটন আনছারী (৩২) নিহত হয়েছেন। তিনি বাগআঁচড়া বাগুড়ী গ্রামের সিদ্দিক আনছারীর বড় ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, লিটন আনছারী প্রয়োজনীয় কাজে বাগআঁচড়া বেলতলা বাজারে যাচ্ছিল। যশোর-সাতক্ষীরা মহাসড়কের বাগআঁচড়ার বাগুড়ী মুড়ির মিল নামক স্থানে যশোরগামী ট্রাক (ঢাকা-মেট্রো-ট-১৫-১৭৪৯) রিকশা অতিক্রমের সময় রাস্তার ডানে চাপ দেয়। এতে লিটসহ মোটরসাইকেলটি রাস্তার খাদে পড়ে গেলে ট্রাকটি লিটনের মাথার ওপর দিয়ে চলে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বেনাপোল (যশোর) : বাগআঁচড়ার নাভারণ-সাতক্ষীরা সড়কের বাগুড়ী এলাকায় ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেলের চালক লিটন আনছারী (৩২) নিহত হয়েছেন। তিনি বাগআঁচড়া বাগুড়ী গ্রামের সিদ্দিক আনছারীর বড় ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, লিটন আনছারী প্রয়োজনীয় কাজে বাগআঁচড়া বেলতলা বাজারে যাচ্ছিল। যশোর-সাতক্ষীরা মহাসড়কের বাগআঁচড়ার বাগুড়ী মুড়ির মিল নামক স্থানে যশোরগামী ট্রাক (ঢাকা-মেট্রো-ট-১৫-১৭৪৯) রিকশা অতিক্রমের সময় রাস্তার ডানে চাপ দেয়। এতে লিটসহ মোটরসাইকেলটি রাস্তার খাদে পড়ে গেলে ট্রাকটি লিটনের মাথার ওপর দিয়ে চলে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

"