সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি

সভাপতি আমিন সম্পাদক মাহবুব

প্রকাশ : ১৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ২০১৯-২০ কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচনে ১৪টি পদের মধ্যে বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেল সম্পাদক পদসহ আটটি পদে বিজয়ী হয়েছে। পাশাপাশি সরকার সমর্থিত প্যানেল সাদা দল সভাপতি পদসহ ছয়টি পদে জয়লাভ করেছে। গতকাল শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির হলরুমে এ ফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার আইনজীবী এ ওয়াই মশিউজ্জামান।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্যানেল থেকে সভাপতি এবং একজন সহসভাপতি, একজন সহসম্পাদক ও তিনজন সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন। আর বিএনপি প্যানেল থেকে সম্পাদক, একজন সহসভাপতি, কোষাধ্যক্ষ, একজন সহসম্পাদক ও চারজন সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন।

সভাপতি পদে এম আমিন উদ্দিন পেয়েছেন ৩ হাজার ২২৫ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এ জে মোহাম্মদ আলী পেয়েছেন ২ হাজার ৪৪৩ ভোট। আর সম্পাদক পদে এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন পেয়েছেন ৩ হাজার ৫৭ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আবদুন নুর দুলাল পেয়েছেন ২ হাজার ৬৪৯ ভোট।

সহসভাপতি পদে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপির আব্দুল বাতেন (২ হাজার ৮৫৬ ভোট) ও আওয়ামী লীগের মো. জসিম উদ্দিন (২ হাজার ৮৪৯ ভোট)।

কোষাধ্যক্ষ পদে জয়ী হয়েছেন বিএনপির মো. ইমাম উদ্দিন (২ হাজার ৯৪৭ ভোট)। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মো. সৈয়দ আলম টিপু পেয়েছেন ২ হাজার ৮৩০ ভোট।

সহসম্পাদক পদে (দুটি পদ) জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের কাজী শামছুল হাসান শুভ (২ হাজার ৭২৯ ভোট) এবং বিএনপির শরিফ ইউ আহমেদ (২ হাজার ৭২২ ভোট)।

সদস্য পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাদা প্যানেল থেকে আফিফা আফরোজ, মো. শামিম সরদার ও চঞ্চল কুমার চৌধুরী জয়ী হয়েছেন। অন্যদিকে বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেল থেকে নির্বাচিত হয়েছেন কাজী আক্তার হোসেন, রাশিদা আলিম ঐশী, মো. ওসমান চৌধুরী এবং সৈয়দা শাহিন আরা লাইলী।

টানা সপ্তমবারের মতো সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন তার প্রতিক্রিয়ায় কারাগারে বন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেছেন।

এর আগে গত ১৩ ও ১৪ মার্চ দুদিন এ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে, নির্বাচনে ১৪টি পদের বিপরীতে ৩৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ৫ হাজার ৮২১ জন আইনজীবী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

প্রসঙ্গত, প্রতি বছর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি-সম্পাদকসহ ১৪টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

 

"