ভুলতা ফ্লাইওভার প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করবেন কাল

প্রকাশ : ১৫ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল শনিবার নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় ৩৫৩ দশমিক ৩৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত চার লেনবিশিষ্ট তিনতলা ভুলতা ফ্লাইওভার (উড়াল সড়ক) উদ্বোধন করবেন। এশিয়ান হাইওয়ের গাজীপুর-মদনপুর সড়কের ভুলতা ফ্লাইওভার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন তিনি। এতে যানজট এবং মানুষের ভোগান্তি কমে যাবে আশা করছেন স্থানীয়রা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মমতাজ বেগম ফ্লাইওভার পরিদর্শন শেষে এ কথা জানান। স্থানীয়রা জানান, উপজেলার ভুলতা এলাকায় রয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহত্তম পাইকারি কাপড়ের বাজার ‘গাউছিয়া মার্কেট’। এছাড়া ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ের সংযোগস্থল হওয়ায় এখানে যানজট ছিল নিত্যসঙ্গী। ভুলতা ফ্লাইওভারটির একপাশ খুলে দেওয়া হলে যানজট নিরসন হবে বলে আশা করছেন স্থানীয়রা। এতে করে সারা দেশের এ উপজেলার যাতায়াত ব্যবস্থার গতিশীলতা বাড়বে। এরই মধ্যে এ এলাকায় জমির দামও বেড়ে গেছে কয়েকগুণ।

পরিবহন শ্রমিকরা জানান, ভুলতা এলাকায় যানজটের কারণে এক ঘণ্টার পথ যেতে সময় লাগে তিন ঘণ্টা। ফ্লাইওভারটি চালু হলে বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ দেশের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চল থেকে ঢাকা হয়ে ময়মনসিংহ বিভাগসহ উত্তর পশ্চিমাঞ্চল সড়ক যোগাযোগের প্রভূত উন্নতি হবে।

জানা গেছে, ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে ২৪০ কোটি টাকা ব্যয়ে চার লেনবিশিষ্ট ভুলতা ফ্লাইওভার নির্মাণে চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল সরকার। ফ্লাইওভারের দৈর্ঘ্য ১ দশমিক ২৩৮ কিলোমিটার। মূল ফ্লাইওভারের নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ১২০ কোটি টাকা, সড়ক নির্মাণে ব্যয় ১১২ কোটি টাকা এবং অন্যান্য ব্যয় ধরা হয় সাড়ে ৩ কোটি টাকা। সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রকল্পটির মেয়াদ ছিল গত বছরের জুন পর্যন্ত। নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ না হওয়ায় প্রকল্পটির মেয়াদ আরো এক বছর বাড়ানো হয়। একই সঙ্গে চলতি বছরের ৮ আগস্ট ফ্লাইওভারটি নির্মাণে আরো ৫৮ কোটি ৫১ লাখ ২০ হাজার ৪৮৬ টাকা বাড়ায় মন্ত্রিসভা কমিটি।

পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী এ ব্যাপারে বলেন, চার লেনবিশিষ্ট তিনতলা ফ্লাইওভারটির এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) কাঞ্চন-মদনপুর সড়কের ফ্লাইওভারটির পুরো সম্পন্ন হয়েছে।

এছাড়া ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ফ্লাইওভারটির কাজ প্রায় ৯০ শতাংশ শেষ হয়েছে। ওই ফ্লাইওভারটিও উদ্বোধন করা হবে।

 

"