হজযাত্রীদের খরচ বাড়েনি

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ama ami

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেছেন, হজযাত্রীদের খরচ বাড়েনি বরং কমেছে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, সৌদি আরব সরকার করসহ বিভিন্ন ব্যয় বৃদ্ধি করলেও সে তুলনায় হজযাত্রীদের খরচ বাড়েনি বরং কমেছে। ঘোষিত প্যাকেজ-১ এর খরচ ৪ লাখ ১৮ হাজার ৫১৬ টাকা ঘোষণা করা হয়। সৌদি সরকার কমবেশি ২৫ হাজার টাকা বৃদ্ধি করায় এ প্যাকেজ হওয়ার কথা ছিল ৪ লাখ ৪২ হাজার ৯১০ টাকা। সে হিসাবে খরচ কমেছে ২৪ হাজার ৪১০ টাকা। একইভাবে প্যাকেজ-২ এ গত বছর ছিল ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা, এবার ৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা। সৌদি সরকার এ প্যাকেজে ১২ হাজার টাকা বৃদ্ধি করেছে। তাই তুলনামূলক হজের খরচ কমেছে।

তিনি বলেন, ‘অতিরিক্ত বিমান ভাড়া ২০ হাজার টাকা প্রস্তাব করা হয়েছিল। সে হিসাবে প্যাকেজ হওয়ার কথা ছিল ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা। কিন্তু মন্ত্রিপরিষদ সভায় প্যাকেজ ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা। সে হিসাবে ব্যয় কমানো হয়েছে ২৬ হাজার ৩৯৫ টাকা। সৌদি আরব কর্তৃপক্ষের নির্ধারণ করা খরচ বিশ্বের জন্যই এক, এটা কেউ কমাতে পারে না। আমাদেরও কমানোর সুযোগ নেই। এই টাকা নেবে সৌদি আরব সরকার। তারা এবার সেই খরচ ২৫ হাজার টাকা বাড়িয়েছে। আর এতেই বেড়েছে হজের খরচ।

তিনি বলেন, এবার হাজীদের কাছ থেকে কোনো অভিযোগ শুনতে চাই না। এমন কোনো অনিয়ম থাকবে না যাতে তারা কষ্ট পান, অভিযোগ করতে পারেন।

এবার হজ পালনে প্যাকেজ-১ এ খরচ পড়বে ৪ লাখ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা এবং প্যাকেজ-২ এ ৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকা খরচ করতে হবে। আগের বারের হজের তুলনায় প্যাকেজ-১ এ খরচ বেড়েছে ২০ হাজার ৫৭১ টাকা ও প্যাকেজ-২ এ বেড়েছে ১২ হাজার ৬৪১ টাকা।

গত হজে প্যাকেজ-১ এর মাধ্যমে হজ পালনে খরচ হয় ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা। অপরদিকে প্যাকেজ-২ এর মাধ্যমে খরচ হয় ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে চলতি বছরের ১০ আগস্ট (৯ জিলহজ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। সৌদি আরবের সঙ্গে হজচুক্তি অনুযায়ী, এবার বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ করতে পারবেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭ হাজার ১৯৮ জন ও অবশিষ্ট ১ লাখ ২০ হাজার জন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ করার সুযোগ পাবেন।

"